জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের ফরম পূরণের বর্ধিত ফি প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে ছাত্র ইউনিয়ন। 

বুধবার সংগঠনের কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি মো. ফয়েজউল্লাহ এবং সাধারণ সম্পাদক দীপক শীল এক বিবৃতিতে বলেন, অন্যথায় ছাত্রসমাজ একত্রিত হয়ে এর বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলবে।

নেতারা বলেন, প্রায় দুই বছর কলেজ বন্ধ, পরীক্ষাও নেওয়া হচ্ছে না। এই করোনাকালীন পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীরা বেতন-ফি মওকুফের দাবি করছে। তবে তা বিবেচনা না করে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ফরমের সঙ্গে সারা বছরের সব ফি যুক্ত করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। এই প্রজ্ঞাপনের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে পুরো বছরের বেতন, সেশন চার্জ ও আগামী বর্ষেরও নির্বাচনী এবং ইনকোর্স পরীক্ষার ফি নেওয়া হবে। অনলাইন ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে টাকা জমা নেবে এবং তার খরচও শিক্ষার্থীদেরই দিতে হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘোষিত প্রজ্ঞাপনকে 'শিক্ষা বাণিজ্যের নগ্ন বহিঃপ্রকাশ' বলে উল্লেখ করেন নেতারা। তারা বলেন, করোনাকালে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বেতন-ফি মওকুফ করতে হবে। অনলাইন ক্লাসের জন্য প্রয়োজনীয় ডিভাইস ও সুবিধা সরবরাহ করতে হবে। সব শিক্ষার্থীকে টিকার আওতায় এনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার রোডম্যাপ ঘোষণা করতে হবে।