নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার আলোচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেছেন, জাতীয় সংসদ একটি পবিত্র জায়গা। এ জায়গায় দাঁড়িয়ে জাতীয় পার্টির চীফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা আমাকে নিয়ে মিথ্যাচার করেছেন। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে পৌরসভা কার্যালয় থেকে ফেসবুক লাইভে এসব কথা বলেন তিনি। 

জাতীয় সংসদের চতুর্দশ অধিবেশনের সমাপনী দিনে বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গার দেওয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, আমি জিএম কাদের সাহেবকে অনুরোধ করব তিনি যেন সত্য তথ্যটুকু জানার চেষ্টা করেন। সেদিন(৮ সেপ্টেম্বর) আমার পৌরসভা কার্যালয়ে দুজন সাংবাদিক ও তিন জন জাতীয় পার্টির নেতা উপস্থিত ছিলেন।  সেখানে সিসিটিভি ফুটেজে স্পষ্ট দেখা যায়,কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারন সম্পাদক স্বপন নিজ পায়ে হেটে পৌরসভা থেকে বের হয়ে গেছেন। 

কাদের মির্জা আরও বলেন, আমার সাথে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ সাহেবের সাথে ফেনীতে দেখা হয়েছিল। এরশাদ সাহেব সে সময় বলেছিলেন, জিএম কাদের নীতি-নৈতিকতা নিয়ে রাজনীতি করেন। সুতরাং জিএম কাদের সাহেব যদি সত্য ঘটনা না জানেন তাহলে আল্লাহর কাছে জবাব দিতে হবে।

কাদের মির্জা বলেন, জিএম কাদের যদি প্রমাণ পান স্বপনকে নির্যাতন করা হয়েছে তবে তিনি আমার বিচার করবেন। আর কারও বিচার করা লাগবেনা। 

 উল্লেখ্য, গত ৮ সেপ্টেম্বর নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভা কার্যালয়ের তৃতীয় তলায় কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম স্বপনকে মেয়র আবদুল কাদের মির্জার উপস্থিতিতে আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীর পরিবার।