বাসে অর্ধেক ভাড়া দিতে চাওয়ায় রাজধানীর বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজের এক ছাত্রীকে ‘ধর্ষণের হুমকি’ দেওয়ার ঘটনায় ওই বাসের চালক ও হেলপারকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

রোববার রাত সোয়া ৯টার দিকে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে আসেন আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

তিনি জানান, শিক্ষার্থীকে ‘ধর্ষণের হুমকি’ দেওয়ার ঘটনায় রোববার সন্ধ্যার দিকে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকার বাস ডিপো থেকে হেলপার মেহেদী ও বাসচালক রুবেলকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১০ এর একটি দল।

খন্দকার আল মঈন বলেন, ‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে দুজনেই শিক্ষার্থীর সঙ্গে বাকবিতণ্ডার কথা স্বীকার করেছে। বাস মালিকের সঙ্গে দৈনিক ৩ হাজার টাকা চুক্তিতে তারা ঠিকানা বাসটি চালাত। তারা অধিক মুনাফালোভের আশায় শিক্ষার্থীদের কাছে হাফ ভাড়া নিতে চায়নি। তারা প্রতিদিন অতিরিক্ত যে চার থেকে পাঁচ হাজার টাকা আয় করেন, তার পুরোটাই নিজেদের মধ্যে ভাগবাটোয়ারা করে নেন।’

হেলপার মেহেদীকে ‘বিকৃত মানসিকতার লোক’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থী শনির আখড়া থেকে তার কলেজে আসার সময় ২৫ টাকার ভাড়া ১৫ টাকা দিতে চান।  তা নিয়েই বাকবিতণ্ডা হয়েছে। অশোভন আচরণ ও গালিগালাজ করেছে মেহেদী। শিক্ষার্থী বাস থেকে নেমে যাওয়ার সময়ও অশোভন আচরণ করেছেন মেহেদী।’

ঠিকানা বাসের হেলপার মেহেদী। ছবি-সংগৃহীত

শিক্ষার্থীকে হেনস্তা করার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদমুখর হয়ে উঠলে মেহেদী ও রুবেল ‘পালিয়ে যান’ বলেও জানান র‌্যাব কর্মকর্তা মঈন।

শিক্ষার্থীকে হেনস্তা করার ঘটনায় তার পরিবার রাজধানীর চকবাজার থানায় মামলা দায়ের করছে বলেও জানান তিনি।

এর আগে রোববার সকালে ‘ধর্ষণের হুমকি’র বিচার ও হাফ পাসের (বাসে অর্ধেক ভাড়া) দাবিতে বদরুন্নেসা কলেজ ক্যাম্পাস থেকে শিক্ষার্থীরা মিছিল বের করতে চাইলে কলেজ ফটকে থাকা পুলিশ তাদের বাধা দেয়। পরে রাজধানীর অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা সেখানে গেলে ফটক খুলে দেওয়া হয়। সকাল ১০টার কিছুক্ষণ পরে কয়েকশ’ শিক্ষার্থী মিছিল নিয়ে বকশীবাজার মোড়ে গিয়ে সড়কে অবস্থান নেয়। এতে বন্ধ হয়ে যায় যান চলাচল।

সেসময় শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, শনিবার রাজধানীর শনির আখড়ায় ঠিকানা পরিবহনের একটি বাসে বদরুন্নেসা কলেজের উচ্চমাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষের এক ছাত্রী অর্ধেক ভাড়া দিতে চাইলে তাকে ধর্ষণের হুমকি দেন বাসের হেলপার। 

শিক্ষার্থীদের অবরোধের কারণে চানখাঁরপুল থেকে বকশীবাজার এবং বকশীবাজার, ঢাকা শিক্ষা বোর্ড ও বুয়েট অভিমুখী সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ওই সময় শিক্ষার্থদের ‘হাফ পাস ভিক্ষা না আমাদের অধিকার’, ‘নিজের অধিকার চাইলে মেলে ধর্ষণের বার্তা’ প্রভৃতি লেখা প্ল্যাকার্ড‘ হাতে ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’ বলে স্লোগান দিতে দেখা যায়।

পরে বেলা ১২টার পর হুমকি দেওয়া হেলপারকে গ্রেপ্তার এবং গণপরিবহনে হাফ পাস (অর্ধেক ভাড়া) চালুর দাবি জানিয়ে ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিয়ে অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয় শিক্ষার্থীরা।