ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় নিহত নটরডেম কলেজছাত্র নাঈম হাসানের মৃত্যুর ঘটনায় মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস বলেছেন, যাদের কারণে নাঈমের এই মৃত্যু, সেই দোষী ব্যক্তিদের ফাঁসি চাই।

নাঈমের মৃত্যুর প্রতিবাদে নটরডেম কলেজের বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরভবনে অবস্থান নেন। তখন তারা ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপসের সঙ্গে সাক্ষাৎ চান। পরে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে নিজ কক্ষ থেকে বেরিয়ে বাইরে অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেন মেয়র তাপস।  

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে মেয়র তাপস বলেন, ‘নাঈম হাসান সন্তানের মতো। যাদের কারণে নাঈমের এই মৃত্যু, সেই দোষী ব্যক্তিদের ফাঁসি চাই।’

শিক্ষার্থী নাঈম হাসান নিহত হওয়ার ঘটনায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দাবির সঙ্গে একমত প্রকাশ করেন ফজলে নূর তাপস। সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির ব্যবস্থাপনায় যারা আছেন তাদের বিষয়ে অনিয়মের তদন্ত এবং ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানিয়েছেন তিনি। 

এক বছরের মধ্যে গুলিস্তানে শিক্ষার্থী নাঈম নিহত হওয়ার জায়গায় সিটি করপোরেশনের অর্থায়নে ‌'শহীদ নাঈম' নামে ফুট ওভার ব্রিজ বানানো হবে বলে আশ্বস্ত করেন তিনি।

শিক্ষার্থীদের মেয়র বলেন, ‍‘আমারও দুজন সন্তান আছে। নিহত নাঈম সন্তানের মতো। শিক্ষার্থীদের সব দাবির সঙ্গে আমি একমত। আমিও দোষীদের ফাঁসি দাবি করি।’

এসময় শিক্ষার্থীরা জানান, হাফ পাসের দাবিতে পথে নামতে হয় তা কাম্য নয়। মেয়র বলেন, এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানাবেন তিনি। 

বুধবার নাঈম হাসান রাজধানীর গুলিস্তানে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় নিহত হয়। নাঈম নটর ডেম কলেজের দ্বাদশ বর্ষের মানবিক বিভাগের ছাত্র ছিল। 

মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস কামরাঙ্গীচরের কামরাঙ্গীচরের ঝাওলাহাটিতে নাঈমের বাসায় গিয়ে তার পরিবারকে সান্তনা দিয়েছেন। একইসঙ্গে তিনি বুধবার রাতে নাঈমের জানাজাতেও অংশে নেন।

নাঈম হাসান নিহতের ঘটনায় ওই গাড়ির চালক রাসেল খানকে (২৭)  আসামি করে পল্টন থানায় মামলা দায়ের করেছেন নাঈমের বাবা শাহ আলম। অনুসন্ধানে জানা যায়, রাসেল একসময় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরশেনের পরিচ্ছন্নতা কর্মী ছিলেন, যে চাকরিও তার চলে গিয়েছিল।