র‌্যাব কর্মকর্তা সেজে সেনাবাহিনীতে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার রাজধানীর আশকোনা ও কুষ্টিয়ায় এ অভিযান চালানো হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে র‌্যাবের ভুয়া আইডি কার্ড ও সেনাবাহিনীর ভুয়া নিয়োগপত্র জব্দ করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- সাইফুল ইসললাম শেখ, তাজন হোসেন, সাবান আলী, এসএম জাহিদুল ইসলাম ও কাজী শাহীন।

র‌্যাব-১ এর সহকারী পরিচালক (গণমাধ্যম) এএসপি নোমান আহমদ জানান, গ্রেপ্তার সাইফুল ইসলাম নিজেকে র‌্যাব-৪ এর অধীনে সাভার ক্যাম্পে কর্মরত ক্যাপ্টেন শাহরিয়ার ইসলাম এবং তাজন হোসেন নিজেকে র‌্যাব-১২ ব্যাটালিয়নের মেজর মশিউর রহমান হিসেবে পরিচয় দিতেন। তারা কুষ্টিয়ার স্থানীয় ঘটক সাবান আলীকে চাকরিপ্রার্থী সংগ্রহের কাজে নিয়োগ দেয়। জিজ্ঞাসাবাদে সাইফুল স্বীকার করে, ঢাকার আশকোনায় অবস্থিত একটি কম্পিউটারের দোকান থেকে সে র‌্যাবের ভুয়া আইডি কার্ড তৈরি করেছে।

এএসপি নোমান জানান, র‌্যাব-১ এর সহায়তায় র‌্যাব-১২ এর কুষ্টিয়া ক্যাম্পের একটি দল ঢাকার আশকোনায় অভিযান চালায়। সেখানে একটি কম্পিউটারের দোকান থেকে র‌্যাবের ভুয়া আইডি তৈরিতে জড়িত জাহিদুল ইসলাম ও কাজী শাহীনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কম্পিউটারেই পাওয়া যায় ভুয়া পরিচয়পত্র ও নিয়োগপত্র।

গ্রেপ্তারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে র‌্যাব জানায়, এসএসসি পাস সাইফুল দীর্ঘ ১১ বছর একটি পোশাক কারখানার নিরাপত্তা বিভাগে চাকরি করেছে। করোনাকালে চাকরিচ্যুত হওয়ার পর সে এই প্রতারণা শুরু করে। তার বিরুদ্ধে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলায় সেনাবাহিনীতে চাকরি দেওয়ার নামে দুই যুবকের কাছ থেকে ১৫ লাখ টাকা নিয়ে ভুয়া নিয়োগপত্র দেওয়ার অভিযোগে মামলা রয়েছে।