শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেছেন, দেশে শুধু গাড়ি সংযোজন নয়, উৎপাদনও করা হবে। সেজন্য প্রগতি ইন্ডাস্ট্রিজের মাধ্যমে নিজস্ব ব্র্যান্ডের গাড়ি তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। কারখানা স্থাপনের জন্য ইতোমধ্যে মিতসুবিশি মোটরসের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।

মঙ্গলবার রাজধানীর একটি হোটেলে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের দেশ-বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ প্রকল্পে গাড়ি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ প্রকল্পের জন্য গত বছরের ৩০ নভেম্বর ৩১ কোটি ৭৫ লাখ টাকায় ৭৩টি মিতসুবিশি এল-২০০ ডাবল কেবিন পিক-আপ কেনার কার্যাদেশ দেয় প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়। প্রতিটির দাম পড়েছে ৪৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা। সে অনুযায়ী মঙ্গলবার গাড়িগুলো হস্তান্তর করা হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেন, দক্ষ জনশক্তি তৈরির একটি ভালো উপায় ড্রাইভিং শেখানো। প্রশিক্ষণ দিয়ে এক লাখ দক্ষ ড্রাইভার তৈরির চেষ্টা করা হচ্ছে। শিল্প মন্ত্রণালয় এবং প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে একযোগে কাজ করার জন্য সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করতে পারে।

বাংলাদেশ ইস্পাত ও প্রকৌশল করপোরেশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান শহীদুল হক ভূঞার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন, শিল্প সচিব জাকিয়া সুলতানা এবং জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক শহিদুল আলম।