মোবাইল-কম্পিউটারের পরিবর্তে নগরবাসীর সবাইকে নিজেদের প্রতিবেশীর সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘সবার সঙ্গে আমাদের মিলেমিশে বসবাস করতে হবে। মোবাইল কিংবা কম্পিউটারের পেছনে সময় ব্যয় করে সম্পর্ক নয়। সম্পর্ক করতে হবে প্রতিবেশীর সঙ্গে। পাড়া-মহল্লায় বিভিন্ন উৎসব ও মেলার আয়োজন করতে হবে। এতে সমাজে শান্তি ও শৃঙ্খলা বিরাজ করবে।’

শুক্রবার গুলশান-২ নম্বরে ইতালি দূতাবাস পার্কে বাংলাদেশ ও ইতালির বন্ধুত্বের ৫০ বছর উদ্‌যাপন উপলক্ষে আয়োজিত ‘ভিনটেজ কার ও বাইক শো’ অনুষ্ঠানে মেয়র এ আহ্বান জানান।

প্রদর্শনী আয়োজনের বিষয়ে আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘এ ধরনের প্রদর্শনী শুধু আন্তসীমান্ত বন্ধুত্বকে উৎসাহিত করে না। এতে বাঙালির আবেগের বিষয়গুলোও প্রদর্শিত হয়। এ প্রদর্শনীর মাধ্যমে দুই দেশের সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে বলে আমার বিশ্বাস।’

মেয়র বলেন, ‘বিশ্বের প্রতিটি দেশই তাদের ঐতিহ্যগুলো সংরক্ষণ করে। এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, ভবিষ্যৎ প্রজন্ম ওই ইতিহাস ও ঐতিহ্য থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে। কিন্তু আমাদের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক নিদর্শন হারিয়ে গেছে। আজকে প্রদর্শিত প্রতিটি গাড়ির পেছনে অনেক আকর্ষণীয় গল্প ও ইতিহাস আছে।’

শিশুদের ভালোবাসার আহ্বান জানিয়ে মেয়র বলেন, শিশুদের সময় দিতে হবে। ইতিহাস ও ঐতিহ্য সম্পর্কে তাদের জানাতে হবে। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ইতিমধ্যে পার্ক, খেলার মাঠ ও বিনোদনকেন্দ্রে শিশুদের জন্য আলাদা কর্নারসহ তাদের সুরক্ষার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে বলেও তিনি জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকা পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম বলেন, ইতালি ও বাংলাদেশের মধ্যে দীর্ঘ ৫০ বছরের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বিদ্যমান। ইতালি দূতাবাসের এ আয়োজন দুই দেশের সুসম্পর্ককে আরও বেশি সুদৃঢ় করবে।

দেশের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের পাশাপাশি অনুষ্ঠানে ইতালি দূতাবাসের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।