চট্টগ্রাম নগরের পতেঙ্গায় নিজ ঘরে আগুনে পুড়ে শারমিন আক্তার মনি নামে সাত বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

এ ঘটনায় দগ্ধ হয়েছেন শিশুটির বাবা আব্দুল মান্নানও। দগ্ধ অবস্থায় তাকে বুধবার রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে। 

বুধবার সন্ধ্যার দিকে নগরের দক্ষিণ পতেঙ্গার ভিআইপি সড়কের মোল্লাঘাটা এলাকায় দীন মোহাম্মদ সওদাগরের কলোনিতে এ ঘটনা ঘটে। 

ঘটনাস্থলে যাওয়া আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার কামরুল হাসান সমকালকে জানান, আগুন লাগার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের চারটি গাড়ি ঘটনাস্থলে গিয়ে এক ঘণ্টার বেশি সময় চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে চারটি পরিবারের ১২টি কাঁচা বসতঘর পুড়ে গেছে। 

তিনি বলেন, ‘শারমিন আক্তার মনি ঘরের ভেতর থেকে বের হতে না পারায় আগুনে পুড়ে মারা গেছে। প্রাথমিকভাবে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে আগুনের সূত্রপাত বলে আমাদের ধারণা। কেননা চারটি পরিবারের চারটি সিলিন্ডার উদ্ধার করেছি আমরা। গ্যাস লিক থেকেই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। মারা যাওয়া মেয়েটির বাবার শরীরের বিভিন্ন স্থান আগুনে দগ্ধ হয়েছে। তাকে উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।’

তিনি জানান,  আগুনে প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। দুর্ঘটনার সঠিক কারণ নির্ণয়ে ফায়ার সার্ভিসের টিম কাজ করছে।

তিনি জানান, আগুন লাগার স্থানটি একসময় বস্তি ছিল। পরে সেটি লিজ নিয়ে চার ভাইবোন সেখানে ঘর নির্মাণ করেছে। নিহত শারমিন আক্তার মনির বাবা-চাচারাই এখানে চারটি ঘরের ১২টি কক্ষে একত্রে পরিবার নিয়ে থাকতেন। 

পতেঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কবির হোসেন জানান, নিহত শারমিনের মরদেহ উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।