ডাবল সেঞ্চুরি মিস করা অ্যাঞ্জেল ম্যাথুসের পিঠ চাপড়ে দিলেন তামিম-মুমিনুলরা। যদিও চট্টগ্রাম টেস্টে দ্বিতীয় দিন শেষে ওটাই বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উদযাপনের উপলক্ষ্য। শেষ সেশনে তার আউটের পর ধাক্কা ছাড়া দিন শেষ করেছেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও মাহমুদুল জয়। তাতে রোদে পোড়া প্রথম দুই সেশনের পর স্বস্তি ফিরেছে টাইগার শিবিরে। 

বাংলাদেশ দ্বিতীয় দিন শেষে প্রথম ইনিংসে কোন উইকেট না হারিয়ে ৭৬ রান তুলেছে। প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কার চেয়ে পিছিয়ে আছে ৩২১ রানে। প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কা ১৫৩ ওভার ব্যাটিং করে তোলে ৩৯৭ রান। 

টস জিতে ব্যাট করে প্রথম দিন ৪ উইকেটে ১৫৮ রান তোলে শ্রীলঙ্কা। দ্বিতীয় দিন ওই মোমেন্টাম নিয়েই শুরু করেন অ্যাঞ্জেল ম্যাথুস এবং দিনেশ চান্দিমাল। তাদের জুটি বেড়ে ১২৬ হওয়ার পর ফিরে যান চান্দিমাল। তিনি খেলেন ৬৬ রানের ইনিংস। ওই ধাক্কার পরে দ্রুত আরও তিন উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা। 

প্রত্যাবর্তনে ক্যারিয়ার সেরা ছয় উইকেট নিয়েছেন নাঈম। ছবি: এএফপি 

সাকিব-নাঈম মিলে তুলে নেন নিরোশান ডিকওয়েলা-রামেস মেন্ডিসদের। ৩১৯ রানে পঞ্চম থেকে ৩২৮ রানে ৮ উইকেট হারায় সফরকারীরা। তবে ব্যাট উচিয়ে ক্রিজে দাঁড়িয়ে ছিলেন ম্যাথুস। তার সঙ্গে দুপুরের  টানা রোদ পোহানো শুরু করেন বিশ্ব ফার্নান্দো। ম্যাথুস রান বাড়িয়ে নিচ্ছিলেন। বিশ্ব ক্রিজে দাঁড়িয়ে ছিলেন। তবে তার কনকাশনে শ্রীলঙ্কা ধাক্কা খায়। 

বদলি নামা অসিথ ফার্নান্দো ২৭ বলে ১ রান করে ফিরে যান। পুনরায় ক্রিজে ফেরা বিশ্ব ৮৪ বলে করেন ১৭ রান। শেষ ব্যাটারের ওপর নির্ভর করে ডাবল সেঞ্চুরির আশা করা ম্যাথুস ১৯৯ রানে নাঈম হাসানের বলে ক্যাচ দেন। তিনি ৩৯৭ বল খেলে ১৯ চার ও এক ছক্কায় ওই রান করেন। টেস্টে ১৪তম ব্যাটার হিসেবে নার্ভাস ১৯৯ রানে আউট হন।  

দায়িত্বহীন ব্যাটিং করলেও টিকে গেছেন তামিম। ছবি: এএফপি

জবাব দিতে নেমে নির্ভার শুরু করতে গিয়ে শুরুতে ক্যাচ দেন তামিম ইকবাল। এরপর যেন চোখ খোলে তার। চেষ্টা করেন সাবলীল খেলে দিন শেষ করার। তরুণ মাহমুদুল জয়কে নিয়ে অভিজ্ঞ ওপেনার সেটা পেরেছেনও। তামিম ৫২ বলে চারটি চারে ৩৫ রান করেছেন। তার সঙ্গী জয় ৬৬ বলে পাঁচ চারে ৩১ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করবেন। 

এর আগে ১৫ মাস পরে জাতীয় দলে ফিরে দুর্দান্ত বোলিং করেছেন নাঈম হাসান। অষ্টম টেস্টের ক্যারিয়ারে তুলে নিয়েছেন তৃতীয় ফাইফার। দুই ওপেনার, সেট ম্যাথুস, চান্দিমালসহ ১০৫ রানে ছয় উইকেট নিয়েছেন ডানহাতি এই স্পিনার। করোনা আক্রান্ত হয়ে অর্ধেক ফিটনেসে মাঠে নেমে সাকিব নিয়েছেন তিন উইকেট। অন্য উইকেটটি দখল করেছেন বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম।

চট্টগ্রাম টেস্ট, দ্বিতীয় দিন

শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংস: ৩৯৭, ওভার-১৫৩। 

ওসাদে ফার্নান্দো-৩৬, করুনারত্নে-৯, কুশল মেন্ডিস-৫৪, ম্যাথুস-১৯৯, ডি সিলভা-৬, চান্দিমাল-৬৬, ডিকওয়েলা-৩, রামেস মেন্ডিস-১, লাসিথ এমবুলডেনিয়া-০, বিশ্ব ফার্নান্দো-১৭, অসিথ-১। 

বাংলাদেশ বোলিং:  শরিফুল-২০-৫৫-০, খালেদ-১৬-৬৬-০, নাঈম হাসান-৩০-১০৫-৬, তাইজুল-৪৮-১০৭-১, সাকিব-৩৯-৬০-৩।

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ৭৬/০, ওভার-১৯।  তামিম-৩৫*, জয়-৩১*। 

শ্রীলঙ্কা বোলিং: বিশ্ব-৪-১৭-০, অসিথ-৪-১৫-০, রামেস- ৭-১৯-০, এলবুলডেনিয়া-৪-১৯-০।