আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, কারাগারে থাকা আওয়ামী লীগ নেতা হাজি মোহাম্মদ সেলিম সাজার বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ আদালতে আপিল করেছেন। যতক্ষণ পর্যন্ত এই আপিলের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না হবে, ততক্ষণ পর্যন্ত তার সংসদ সদস্য পদ ‘ইফেক্টেড’ হয় না, এটাই সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের একাধিক রায়ে বলা আছে।

রোববার রাজধানীর বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট/চিফ মেট্টোপলিটান ম্যাজিস্টেটদের জন্য আয়োজিত ১৪৫তম রিফ্রেশার কোর্সের উদ্ধোধন অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

সারা বিশ্বে ডাটা সুরক্ষার ব্যাপারে কি কি আইন আছে, সেগুলো পর্যালোচনা করা হচ্ছে জানিয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য এবং সে উদ্দেশে এই আইন (ডাটা সুরক্ষা আইন) প্রণয়ন করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, বাক স্বাধীনতা ও সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা বন্ধ করার জন্য ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করা হয়নি। ডিজিটাল মাধ্যমে যেসব অপরাধ হচ্ছে, সেগুলো দমন করার জন্য এই আইন করা হয়েছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, ডাটা সুরক্ষা আইন প্রণয়নের ক্ষেত্রে স্টেকহোল্ডারদের যৌক্তিক পরামর্শ অবশ্যই গ্রহণ করা হবে। ডাটা সুরক্ষা আইনের খসড়া চূড়ান্তকরণের আগে সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধি, ব্যবসায়িক প্রতিনিধিসহ অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে বৈঠক করে আলোচনা করা হবে।

বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানার সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মো. গোলাম সারওয়ারও বক্তব্যে রাখেন।