অবৈধভাবে বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা (মার্কিন ডলার) নিয়ে দেশের বাইরে যাওয়ার চেষ্টাকালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে দুই যাত্রীকে আটক করেছে ঢাকা কাস্টমস হাউজ। এসময় দুই যাত্রীর কাছ থেকে মোট ২ লাখ ৩০ হাজার ৫০০ মার্কিন ডলার জব্দ করা হয়েছে।

আটক দুই যাত্রীর মধ্যে মাহমুদা ফিরোজ বাংলাদেশের নাগরিক এবং মেহমেত রেমজি তুরস্কের নাগরিক। এর মধ্যে মাহমুদা ফিরোজের কাছ থেকে ৩০ হাজার ৫০০ মার্কিন ডলার এবং মেহমাত রেজমির কাছ থেকে দুই লাখ মার্কিন ডলার উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার তাদের বিরুদ্ধে রাজধানীর বিমানবন্দর থানায় মুদ্রাপাচার আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়।

পুলিশ জানায়, কাস্টমস কর্মকর্তা বাদী হয়ে মুদ্রাপাচারের সঙ্গে জড়িত এই চক্রটির বিরুদ্ধে মামলা করেন। এ মামলায় ওই দুই যাত্রীকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

জানা গেছে, বুধবার রাতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৃথক দুটি ঘটনায় অবৈধ মার্কিন ডলারসহ তাদেরকে আটক করা হয়। ঢাকা কাস্টমস হাউজের পাঠানো এক খুদে বার্তায় এ বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

কাস্টমসের পক্ষ থেকে জানানো হয়, সন্ধা সাড়ে ছয়টায় মাহমুদা ফিরোজ নামের যাত্রীকে বিমানবন্দরের ৭ নম্বর বোর্ডিং গেটে আটক করা হয়। তার কাছে ৩০ হাজার ৫০০ মার্কিন ডলার পাওয়া যায়। তিনি এমিরেটস এয়ারলাইনের ইকে-৫৮৭ ফ্লাইটের যাত্রী ছিলেন।

অপরদিকে রাত সাড়ে ৯টায় মেহমেত রেমজি নামের যাত্রীকে বিমানবন্দরের ১০ নম্বর বোর্ডিং গেটে আটক করা হয়। তার কাছ থেকে দুই লাখ মার্কিন ডলার পাওয়া যায়। তিনি টার্কিশ এয়ারলাইন্সের টিকে ৭১৩ ফ্লাইটের যাত্রী ছিলেন।