ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এলাকার মার্কেট ভবনসহ বহুতল বাণিজ্যিক ভবনের পরিদর্শন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সোমবার সকালে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এলাকাধীন গুলশান পিংক সিটি শপিং কমপ্লেক্স এবং দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এলাকার গাউছিয়া মার্কেটের ভবন পরিদর্শন করা হয়েছে। ৮২টি প্রশ্নের নতুন চেকলিস্টের মাধ্যমে পরিদর্শন কার্যক্রম চলছে।

পরিদর্শন কার্যক্রমে নেতৃত্ব দিচ্ছে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা)। আর সহযোগিতা করছে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর (ডাইফ)।

প্রাথমিকভাবে ১০৭২টি ভবন পরিদর্শনের লক্ষে ১১টি সমন্বিত পরিদর্শন ও পর্যবেক্ষণ টিম গঠন করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে বাকি ভবনগুলোও পরিদর্শন করা হবে। ডাইফি, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ও ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের কাছে সংরক্ষিত তথ্যের ভিত্তিতি এক হাজার ৭২টি ভবনের তালিকা করা হয়েছে। এমনকি অতিরিক্ত বাণিজ্যিক ভবন কিংবা মার্কেট সরেজমিনে পাওয়া গেলে সেগুলোও পরিদর্শন করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পরিদর্শন প্রতিবেদনের ভিত্তিতে পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে সরকার।

১১ কর্তৃপক্ষের সমন্বয় কমিটিতে রয়েছে ডাইফি, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তর, পরিবেশ অধিদপ্তর, গণপূর্ত অধিদপ্তর, স্থাপত্য অধিদপ্তর, তিতাস গ্যাস, বিস্ফোরক অধিদপ্তর, প্রধান বিদ্যুৎ পরিদর্শকের অধিদপ্তর, এফবিসিসিআই, ডেসকো, প্রধান বয়লার পরিদর্শকের কার্যালয়, রাজউক, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন।

সম্প্রতি চট্রগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ও বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনার আগে-পরেও কয়েকটি অগ্নিদুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে বিভিন্ন স্থাপনার নিরাপত্তা ঝুঁকির বিষয়টি আলোচনায় এসেছে। এ প্রেক্ষিতে প্রাথমিকভাবে রাজধানীর সব বাণিজ্যিক ভবন এবং মার্কেটের নিরাপত্তা মান তদারক করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

এর আগে গত বছর নারায়ণগঞ্জের হাসেম ফুড কারখানায় অগ্নিদুর্ঘটনায় ৫২ শ্রমিকের মৃত্যুর পর সারা দেশের ৫ হাজার ২০৬টি কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। ওই কার্যক্রম এখনো চলমান রয়েছে।

বিষয় : ভবন পরিদর্শন শুরু ভবন পরিদর্শন পিংক সিটি শপিং কমপ্লেক্স গাউছিয়া মার্কেট

মন্তব্য করুন