দেশে সামাজিক সুরক্ষার বিষয়গুলো নিশ্চিত করতে হলে সমাজে সুশাসন প্রতিষ্ঠার বিকল্প নেই। সেজন্য দরকার গণমাধ্যমে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন তৈরি করা।

মঙ্গলবার রাজধানীর পল্টনে ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরাম (ইআরএফ) মিলনায়তনে ‘সামাজিক সুরক্ষা কর্মসূচির (এসপিপিএস) পরিচালনায় সাংবাদিকদের ভূমিকা’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন বক্তারা।

দ্য এশিয়া ফাউন্ডেশনের সহায়তায় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ওয়েব ফাউন্ডেশন এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা ও মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রাকিব আহমেদ বলেন, দেশে গত কয়েক বছরে অনেক অনিয়ম, দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি, রাজনৈতিক পেশী লক্ষ্য করা যাচ্ছে। যা সুশাসন এবং জনগণের অধিকার নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে প্রধান বাধা।

তিনি আরও বলেন, সমাজে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করতে রাষ্ট্রকে সাংবাদিকদের স্বাধীনতার সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে। এটি রাষ্ট্রের দায়িত্ব।

ওয়েব ফাউন্ডেশনের গভর্ন্যান্স অ্যান্ড রাইটস ডোমেনের সমন্বয়কারী অনিরুদ্ধ রায় বলেন, সরকার সাধারণ মানুষের কল্যাণে অনেক সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কিন্তু অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতির কারণে এগুলো সঠিকভাবে বাস্তবায়ন হচ্ছে না। দেশে ২১টি মন্ত্রণালয়ের ৯৯টি সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি রয়েছে। এগুলোতে স্বচ্ছতা আনা জরুরি। এক্ষত্রে গণমাধ্যম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন— ওয়েব ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক মহসিন আলী, ইআরএফের সাধারণ সম্পাদক এস এম রাশিদুল ইসলাম, ওয়েব ফাউন্ডেশনের সহকারী পরিচালক কানিজ ফাতিমা ও প্রকল্প সমন্বয়কারী নির্মল দাস।