তেল কম দেওয়ায় সোহরাব সার্ভিস স্টেশনকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তর। বৃহস্পতিবার এ জরিমানা করা হয়। এর মধ্যে অভিযোগ দায়ের করা বেসরকারি ব্যাংকের কর্মকর্তা শেখ ইসতিয়াক আহমেদ পাবেন ২৫ হাজার টাকা। 

গত ১ আগস্ট মোটরসাইকেলে পরিমাণে তেল কম দেওয়ার অভিযোগে রাজধানীর কল্যাণপুরে সোহরাব পেট্রোল পাম্পের সামনে আট ঘণ্টা অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছিলেন শেখ ইসতিয়াক আহমেদ। ‘সঠিক পরিমাণে তেল চাই’ প্ল্যাকার্ড নিয়ে ওই দিন সার্ভিস স্টেশনের সামনে অবস্থান নেন তিনি। 

পরে তিনি ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে একটি লিখিত অভিযোগ করেন। সেই অভিযোগ গ্রহণ করে শুনানির পর পেট্রোল পাম্পটিকে এ জরিমানা করা হয়। 

শেখ ইসতিয়াক আহমেদ লিখিত অভিযোগ করার পর বলেছিলেন, ভোক্তা অধিকারের কর্মকর্তারা তার কাছ থেকে ঘটনার বিবরণ শুনেছেন। তারপর তিনি ভোক্তা অধিকারের ফরমে লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগ তদন্ত করে ব্যবস্থা নিলে হাজারও মোটরসাইকেল চালক দীর্ঘদিনের অনিয়ম থেকে রেহাই পাবেন।মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় ভোক্তা অধিদপ্তরে অভিযোগ করতে যান ইসতিয়াক। প্রায় আধ ঘণ্টা সময় তার অভিযোগ শোনেন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (অভিযোগ) মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান। পরে লিখিত অভিযোগ গ্রহণ করেন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক। 

অভিযোগকারী ইসতিয়াক বলেন, আমার সঙ্গে অন্যায় হয়েছে। তাই অধিকার আদায়ে আমি প্রতিবাদ করেছি। কোনো আন্দোলনের উদ্দেশে এটা করিনি। 

এর আগে, জ্বালানি তেল কম দেওয়ায় ওই এক পেট্রোল পাম্পকে ২ লাখ টাকা জরিমানা করেন বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশনের (বিএসটিআই) ভ্রাম্যমাণ আদালত। অনাদায়ে ৩ মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে। ইশতিয়াক হোসেনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার এই অভিযান চালানো হয়। 

ওই দিনের ঘটনার বিষয়ে ইশতিয়াক বলেন, সোমবার বেলা ১০টার দিকে আমি শ্যামলী থেকে মিরপুরের বিআরটিএ কার্যালয়ে যাচ্ছিলাম। পথে ৪ নম্বর দক্ষিণ কল্যাণপুরের সোহরাব সার্ভিস স্টেশন থেকে মোটরসাইকেলে ৫০০ টাকার অকটেন নিই। কিন্তু সামনে মিটার থাকলেও তেল সরবরাহকারী সরে পেছনে গিয়ে দাঁড়াতে বলেন। একটু দূরে গাছের আড়ালে গেলে মোটরসাইকেলে তেল দেওয়া হয়। তখন তেল কম দেওয়ার বিষয়টি বুঝতে পারি। ৫০০ টাকার ভাউচার পেলেও সঠিক পরিমাণে তেল পাইনি বলে অভিযোগ করি। ডিপো কর্তৃপক্ষকে মোটরসাইকেল থেকে তেল বের করে মাপতে বলি। কিন্তু তারা তা করেনি।

পরে তেল কম দেওয়ায় পাম্পের সামনে অবস্থান করেন ইশতিয়াক। ‘সঠিক পরিমাণে তেল চাই’ লেখা একটি প্ল্যাকার্ড নিয়ে সকাল ১১টা থেকে এ অবস্থান নেন তিনি। এরপর আজ অভিযান চালায় বিএসটিআই। তাতে পরিমাপে কম দেওয়ার প্রমাণ পাওয়া যায়।

বিএসটিআইয়ের সহকারী পরিচালক (সিএম) রিয়াজুল হক বলেন, মাপে তেল কম দেওয়ার প্রমাণ পাওয়ায় সোহরাব ফিলিং স্টেশনকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।