মায়ের চিকিৎসার নামে বাস এবং দোকানে ভিক্ষে করে সেই টাকায় মাদক কারবার শুরু করে দুই ব্যক্তি। এ অভিযোগে গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় আব্দুল্লাহপুর থেকে তাদের গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাদের কাছ থেকে হেরোইন জব্দ করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলো- মো. সেলিম ও মামুন মিয়া। তাদের গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী এলাকায়। ঢাকার তুরাগ থানার বালুরমাঠ বস্তিতে বসবাস করে।

উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ জানিয়েছে, বুধবার সন্ধ্যায় আব্দুল্লাহপুর পুলিশ বক্সে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের কাছে মায়ের চিকিৎসার কথা বলে টাকা চায় সেলিম ও মামুন। এসময় পুলিশ তাদের কাছে চিকিৎসাপত্র দেখতে চায়। চিকিৎসাপত্র এবং তাদের দেওয়া তথ্যে গড়মিল পাওয়া যায়। এরপরই তাদের আটক করে জেরা করে পুলিশ।

এরপর তাদের দেহ তল্লাশী একশ' পুরিয়া হেরোইন পাওয়া যায়। জেরার মুখে তারা স্বীকার করে, চিকিৎসার নামে টাকা তুলে সেই টাকা দিয়ে হেরোইন কিনে রাতে বিক্রি করে। নিজেরাও হেরোইন সেবন করে। 

উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন সমকালকে বলেন, গ্রেপ্তারকৃতরা মাদকসেবী এবং মাদক কারবারী। তাদের মা অসুস্থ নয়। তারা মায়ের অসুস্থতার কথা বলে ভিক্ষে করে। সেই টাকায় মাদক কারবার করে তারা।

তিনি আরও জানান, তাদের বিরুদ্ধে মাদক মামলা দায়ের করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তাদের আদালতে পাঠানো হয়।