রাজধানীর সবুজবাগে ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে রেস্টুরেন্টকর্মী ধর্ষক রাজু আহমেদকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদ দেওয়া হয়েছে। ঢাকার ৩ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ এম জুলফিকার হায়াত গতকাল বৃহস্পতিবার আসামির উপস্থিতিতে এ রায় দেন। রায়ে ধর্ষণের ফলে জন্ম নেওয়া শিশুর দায়িত্ব ২১ বছর পর্যন্ত রাষ্ট্রের বলে উল্লেখ করা হয়।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ভিকটিম সবুজবাগ থানাধীন উত্তর মাদারটেকের এলাকার একটি তিনতলা বাসায় পরিবারসহ ভাড়া থাকত। সেখানে সুযোগ পেয়ে ভিকটিমকে হাত-পা ও মুখ বেঁধে ধর্ষণ করে আসামি রাজু। পরে রাজু আহমেদ ভিকটিমের বাসায় এসে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে।

পরে ভিকটিমের শারীরিক গঠনের পরিবর্তন দেখা দিলে তাকে চিকিৎসক পরীক্ষা করে জানান, ভিকটিম আট মাসের গর্ভবতী। এরপর ২০১৮ সালের ২ ফেব্রুয়ারি আসামির বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করেন ভিকটিমের মা।

মামলার বিচারকালে ১০ জনের সাক্ষ্য গ্রহণের মাধ্যমে বিচার শেষে এ রায় ঘোষণা করা হয়।