বন্ধুর জন্মদিনের অনুষ্ঠান শেষ করে মাওয়া থেকে মোটরসাইকেলে রাজধানী ঢাকায় ফিরছিলেন নাঈম ইসলাম (২০) নামের এক তরুণসহ ১০ জন। পথে পোস্তগোলায় ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ হারান নাঈম।

বৃহস্পতিবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে। একই দিন তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকায় ট্রাকের ধাক্কায় জিন্নাত আলী (৫০) নামে এক পথচারী নিহত হন।

নিহত নাঈমের মামা ইয়াসিন হোসেন জানান, নাঈমের এক বন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে তারা ১০ জন পাঁচটি মোটরসাইকেল নিয়ে বুধবার রাতে মাওয়া এলাকায় ঘুরতে যায়। সেখানে তারা কেক কাটে। এরপর সেখান থেকে ফেরার পথে বৃহস্পতিবার ভোররাতে পোস্তগোলা ব্রিজ এলাকায় ট্রাকের ধাক্কায় নাঈমসহ দুজন ছিটকে পড়ে। নাঈম মোটরসাইকেল চালাচ্ছিল। আহত অবস্থায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক নাঈমকে মৃত ঘোষণা করেন। তার বন্ধু প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে।

নাঈমের গ্রামের বাড়ি লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলায়। তবে ঢাকার বাংলামটরে এক আত্মীয়ের বাসায় থাকতেন। তিনি একটি ফার্মেসির সেলসম্যান হিসেবে চাকরি করতেন।

এদিকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকায় ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের পাশে মিনিট্রাকের ধাক্কায় জিন্নাত আলী নামে এক পথচারী নিহত এবং অপর দুই পথচারী আহত হয়েছেন। তিনি একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন।

শিল্পাঞ্চল থানার এসআই শেখ জহিরুল ইসলাম জানান, ট্রাকটি চালাচ্ছিলেন চালকের হেলপার। দুর্ঘটনার সময় ট্রাকটি ইউটার্ন নিচ্ছিল। ফুটপাত দিয়ে যাওয়ার সময় তাঁকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয় ট্রাকটি। এতে জিন্নাতসহ তিন পথচারী আহত হন। স্থানীয় লোকজন তাঁদের শমরিতা হাসপাতালে নিয়ে যায়। এ সময় জিন্নাতকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায়। ট্রাকটি জব্দ ও হেলপার জিহাদ খানকে আটক করা হয়েছে।