চট্টগ্রাম নগরের ব্যস্ততম এলাকা ওয়াসা মোড়ে নির্মাণাধীন একটি ২১ তলা ভবনের নবম তলায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। রোববার দুপুর আড়াইটার দিকে আগুনের সূত্রপাত হয়। প্রায় দুই ঘণ্টা পর বিকেল পৌনে পাঁচটার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয় ফায়ার সার্ভিসের তিনটি স্টেশনের আটটি গাড়ি। এ ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে ব্যস্ততম এলাকা হওয়ায় ও ভবনটির পাশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থাকায় আগুনের ধোঁয়া দেখে সবার মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এতে ওই সড়কে যানজটের সৃষ্টি হওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েন পথচারীরা।

আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক আবদুল মালেক বলেন, আগুন লাগার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি স্টেশনের আটটি গাড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। বিকেল পৌনে পাঁচটার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। আগুনে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। নির্মাণাধীন ভবনটির নয়তলায় বেশকিছু পরিত্যক্ত জিনিস ও নির্মাণ সামগ্রী রাখা ছিল। আগুনের সূত্রপাতের কারণ নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তদন্তের পর বিস্তারিত জানানো যাবে। 

এদিকে, ভবনটিতে কয়েকজন শ্রমিক আগুনে আটকা পড়েছে বলে গুঞ্জন উঠে। তবে এ ব্যাপারে আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের মডুলেশন ইনচার্জ মো. কফিল উদ্দিন বলেন, কেউ ভবনের ভেতরে আটকা পড়েননি। কেননা ভেতরে কেউ থাকলে তো অবশ্যই ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা তাঁদেরকে দেখতে পেতেন। 

তিনি বলেন, নয়তলায় রাখা পরিত্যক্ত জিনিস ও নির্মাণ সামগ্রীর ওপর শ্রমিকেরা সিগারেট খেয়ে অবশিষ্ট অংশ ফেলেন বলে জানতে পেরেছি। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, সিগারেটের আগুন থেকেই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে। 

এদিকে, ভবনের কয়েকজন নির্মাণশ্রমিক জানান, নির্মাণাধীন ভবনে ওয়েল্ডিংয়ের সময় বিদ্যুৎ সংযোগের কাজ চলছিল। সেখান থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর ভবনের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা।