পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব হামিদা বেগমের বিরুদ্ধে তার সহোদর ছোট ভাইকে নিজ বাড়ি (পৈত্রিক ভিটা) থেকে উচ্ছেদের অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার দুপুরে ঢাকা সেগুনবাগিচার ক্রাইম রিপের্টার্স ইউনিটি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বাড়ি থেকে উচ্ছেদের অভিযোগ করে প্রতিবাদ জানিয়েছেন সচিবের ছোট ভাই মো. শফিউল আজম। বাড়িটি ফিরে পেতে তিনি প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চেয়েছেন।

লিখিত বক্তব্যে শফিউল আজম বলেন, ২০১২ সালের ১ এপ্রিল সচিব হামিদা বেগম প্রশাসনিক ক্ষমতার অপব্যবহার করে নরসিংদীর মাধবদী থানার খোর্দ্দনওপাড়া গ্রামের পৈত্রিক ভিটা থেকে সহোদর ছোট ভাইকে স্ত্রী ও শিশু সন্তানসহ উচ্ছেদ করেছেন। পরে অন্যত্র বাড়ি নির্মাণ করে বসবাসেও হামিদা বেগমের রোষানল থেকে নিষ্কৃতি পাওয়া যাচ্ছে না। স্বাধীনতাবিরোধী চক্রের ক্যাডারদের ব্যবহার করে অত্যাচার, জুলুম, নির্যাতন করা হচ্ছে তাকে। প্রাণে বেঁচে থাকা, পৈত্রিক ভিটা ফেরত পেতে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, উচ্ছেদের পর বেশ কিছুদিন খোলা আকাশের নিচে বসবাস করেন তিনি। পরে পৈত্রিকভাবে পাওয়া ১৫-২০ ফুট গভীর অন্য একটি প্লটে তিনি মাটি ভরাট করে বাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করছেন। এখান থেকেও বড় বোন হামিদা বেগম উচ্ছেদ করার চেষ্টা করছেন। স্ত্রীকে দূরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বদলিসহ মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির চেষ্টা করা হচ্ছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।