পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে রাজধানীর আদালত প্রাঙ্গণ থেকে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গি ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় করা মামলায় ইদি আমিন নামের এক আসামি আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন।

রোববার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করেন তিনি। এরপর পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তার চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। ঢাকার অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেন এ আদেশ দেন।

ঢাকা মহানগর পুলিশের অপরাধ ও তথ্য বিভাগের উপপরিদর্শক (এসআই) আশ্রাব আলী এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

এর আগে ইদি আমিন আইনজীবীর মাধ্যমে আত্নসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। অন্যদিকে জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাকে দশ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) পরিদর্শক মুহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ। শুনানি নিয়ে আদালত ইদি আমিনের চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

প্রসঙ্গত, গত ২০ নভেম্বর পুলিশকে মারধর ও চোখে পিপার স্প্রে করে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ফটক থেকে নিষিদ্ধ সংগঠন আনসার আল ইসলামের দুই সদস্যকে তাদের সহযোগীরা ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনার দিন ওই দুজনসহ ১২ আসামিকে সন্ত্রাসবিরোধী ট্রাইব্যুনাল থেকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের (সিএমএম) হাজতখানায় নেওয়া হচ্ছিল।

ছিনিয়ে নেওয়া ওই দুই জঙ্গি হলেন মইনুল হাসান শামীম ওরফে সিফাত সামির ও মো. আবু ছিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব। তারা জাগৃতি প্রকাশনীর প্রকাশক ফয়সল আরেফিন দীপন এবং লেখক ও ব্লগার অভিজিৎ রায় হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। এ ছাড়া আরও কয়েকটি হত্যা মামলার আসামি তারা।