রাজধানীর পল্লবী এলাকায় নির্মাণাধীন ভবন থেকে ইট পড়ে রুবি আক্তার (৩০) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। গত সোমবার এ ঘটনার পর নিহত নারীর ভাই বাদী হয়ে ভবন কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগে মামলা করেছেন। রুবির স্বামী সেনাবাহিনীতে কর্মরত।

পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পারভেজ ইসলাম সমকালকে বলেন, ‘পল্লবীর বালুরঘাট এলাকায় স্টারলিং স্কুলের দোতলা ভবন বর্ধিতকরণের কাজ চলছিল। সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে স্কুলের পাশ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন ওই নারী। হঠাৎ চারতলা থেকে একটি ইট তার মাথায় পড়লে তিনি গুরুতর আহত হন। হাসপাতালে নেওয়ার পর মৃত্যু হয় তার।’

পুলিশ জানায়, প্রথমে তাকে উদ্ধার করে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে নেওয়া হয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে। সেখানে তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। পরে পুলিশ তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায়।

স্বজনরা জানান, রুবি তার স্বামী করপোরাল মিজানুর রহমান ও সন্তান মাইশাকে নিয়ে মানিকদী এলাকায় থাকতেন। তাদের গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে। এ ঘটনায় রুবির ভাই হাজী আবদুল হালিম বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন। এতে তিনি ভবন নির্মাণসংশ্নিষ্ট দুজনকে আসামি করেছেন। তারা হলেন- মশিউর রহমান ও আবদুর রশিদ। তারা পলাতক রয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পরিবারের অভিযোগ, পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা না করেই স্কুলটি চারতলা করা হচ্ছে। তাদের অবহেলা ও গাফিলতির শিকার হয়েছেন রুবি। এর জন্য দায়ীদের কঠোর শাস্তি চান তারা।