সিটি করপোরেশনের ময়লাবাহী গাড়ির ধাক্কায় আবারও একজন নিহত হয়েছেন। এবার রাজধানীর মিরপুর–১ নম্বর সেকশনে এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত ব্যক্তির নাম আবু তৈয়ব (২৬), তিনি পেশায় ব্যবসায়ী ছিলেন।

সোমবার সকালে তিনি হেঁটে রাস্তা পার হওয়ার সময় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ময়লার গাড়ি তাকে ধাক্কা দেয়। এর আগেও দুই সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় শিক্ষার্থীসহ বেশ কয়েকজনের মৃত্যু হয়।

শাহ আলী থানার ওসি আমিনুল ইসলাম সমকালকে বলেন, ব্যবসায়ী আবু তৈয়ব নরসিংদীতে থাকতেন। ব্যবসায়িক প্রয়োজনে ঢাকায় এসেছিলেন। সোমবার সকাল ১১টার দিকে মিরপুর–১ নম্বরের মুক্তবাংলা শপিং কমপ্লেক্সের পাশে সনি সিনেমা হল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। সেখানে পদচারী সেতু থাকলেও তিনি নিচ দিয়ে রাস্তা পার হচ্ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ণনা অনুযায়ী, ময়লার গাড়িটি তাকে ধাক্কা দিলে তিনি ছিটকে পড়েন। এরপর তাকে চাপা দিয়ে চলে যায় গাড়িটি। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায়।

ওসি জানান, দুর্ঘটনার পর আশেপাশের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে পর্যালোচনা করে পুলিশ। তাতে দেখা যায়, ডিএনসিসির ময়লাবাহী গাড়িটি ওই যুবককে চাপা দিয়ে চলে যাচ্ছে। ছবিতে গাড়ির পেছনের অংশ দেখা যায়। গাড়িটি শনাক্ত করে দায়ী চালককে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে।

শাহ আলী থানার এসআই মঞ্জুরুল হক জানান, নিহত আবু তৈয়ব পরিবারের সঙ্গে নরসিংদীর শিবপুরের বড়ই গ্রামে থাকতেন। তার বাবার নাম আবু হানিফ। দুর্ঘটনার পর পরিবারের সদস্যদের খবর দেওয়া হয়। পরে তারা মর্গে এসে নিহতের পরিচয় নিশ্চিত করেন। তাৎক্ষণিকভাবে তারা শোকে কাতর থাকায় নিহতের ব্যাপারে বিস্তারিত জানা সম্ভব হয়নি। তারা কিছুটা সামলে উঠলে এ ঘটনায় একটি মামলা করা হবে।

নিহতের শ্বশুর মো. মাসুদ জানান, পোশাক কারখানায় কাপড় সরবরাহের ব্যবসা করতেন আবু তৈয়ব। তিনি সোমবার সকাল ৭টার দিকে বাড়ি থেকে বের হন। এরপর ব্যবসায়িক প্রয়োজনে মিরপুরের একটি পোশাক কারখানায় যান। কাজ শেষে বাড়ি ফেরার উদ্দেশে রাস্তা পার হওয়ার সময় দুর্ঘটনাটি ঘটে।

এর আগে গত বছরের ২ এপ্রিল রাতে খিলগাঁওয়ে ডিএসসিসির ময়লার গাড়ির ধাক্কায় নাসরিন আক্তার নামে এক নারী নিহত হন। আহত হন তার স্বামী মোটরসাইকেল চালক মো. শিপন। ওই বছরের ২৩ জানুয়ারি মহাখালীর উড়ালসড়কের কাছে ময়লার গাড়ির ধাক্কায় শিখা রানী ঘরামির মৃত্যু হয়। তিনি ডিএনসিসির পরিচ্ছন্নতাকর্মী ছিলেন। একই বছরের জুলাইয়ে মিরপুরে পুলিশ স্টাফ কলেজের সামনে ময়লার গাড়ির চাপায় সাব্বির আহমেদ নামের এক তরুণ নিহত হন। ২০২১ সালের ২৪ নভেম্বর গুলিস্তানে ময়লার গাড়ির ধাক্কায় প্রাণ হারান নটরডেম কলেজের ছাত্র নাঈম হাসান। পরদিন ২৫ নভেম্বর দুপুরে পান্থপথ এলাকায় সংবাদকর্মী আহসান কবির খানের মৃত্যু হয়। ওই বছরের ২৩ ডিসেম্বর ওয়ারী এলাকায় ময়লার গাড়ির ধাক্কায় স্বপন কুমার সরকার নামে আরেকজন নিহত হন।