ঢাকা শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

শেষ হলো ওয়েবিনারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্মেলন

শেষ হলো ওয়েবিনারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্মেলন

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ৩০ আগস্ট ২০২০ | ০৬:২৯

বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড জাতীয় কমিটির সভাপতি কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের জন্য একটি জাতিসত্তা তৈরি করেছেন। একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের স্থপতি হয়ে তিনি আমাদের বাঙালিসত্তাকে গৌরবের জায়গায় পৌঁছে দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একজন অবিনাশী মানুষ। তিনি মৃত্যুহীন একজন মানুষ, যাঁর সত্তাকে আমরা সম্মান জানিয়ে আমাদের জাতিসত্তাকে ধরে রাখব।’

‘হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি: শেখ মুজিবুর রহমান’ প্রতিপাদ্য নিয়ে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ১৫ দিনব্যাপী ওয়েবিনারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্মেলনে (আইবিসিএমআর) কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন এসব কথা বলেন।

মুক্ত আসরের উদ্যোগে বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড জাতীয় কমিটির প্রথমবারের মতো আয়োজিত এ ওয়েবিনার শনিবার রাতে শেষ হয়েছে।

সেলিনা হোসেন বলেন, ‘এমন আয়োজনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে আরও আন্তর্জাতিক বিশ্বে পৌঁছে দেওয়া হলো। বঙ্গবন্ধু আমাদের জন্য একটি জাতিসত্তা তৈরি করেছেন, একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের স্থপতি হয়ে তিনি আমাদের বাঙালিসত্তাকে গৌরবের জায়গায় পৌঁছে দিয়েছেন। আমরা সেই জায়গা ধারণ করছি। তিনি জাতিসংঘে বাংলায় ভাষণ দিয়ে মাতৃভাষাকে সমৃদ্ধ করেছেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একজন অবিনাশী মানুষ। তিনি মৃত্যুহীন একজন মানুষ; যাঁর সত্তাকে আমরা সম্মান জানিয়ে আমাদের জাতিসত্তাকে ধরে রাখব।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের সংস্কৃতির সহযোগিতায়, আমাদের মূল্যবোধের জায়গায়, মানবিক চেতনায় দেশপ্রেমে উদ্ধুদ্ধ হয়ে আমরা সেই জাতিসত্তাকে বিনির্মাণ করব। যার মাধ্যমে বাঙালি জাতিসত্তা বিশ্বের দরবারে একটি অন্য রকমের মাত্রার জায়গায় তৈরি হবে।’

বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড জাতীয় কমিটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এ কে এম শাহনাওয়াজ বলেন, ‘এ সম্মেলনের বিভিন্ন প্রবন্ধের মাধ্যমে উঠে এসেছে বঙ্গবন্ধুর জীবনকর্মের নানা দিক। নানান দেশের মানুষ, নানান ভাষায় বঙ্গবন্ধুকে তুলে ধরার ছিল একটি ভিন্নধর্মী প্রচেষ্টা।’

যুক্তরাজ্যের লেখক ও গবেষক প্রিয়জিৎ দেবসরকার বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শুধু মহান নেতা নন, তিনি সারা বিশ্বের একজন আর্দশ ও অনুপ্রেরণাদায়ক।’

সমাপনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মুক্ত আসরের প্রধান উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) মাসুদুর রহমান বীর প্রতীক, বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড জাতীয় কমিটির সভাপতি সেলিনা হোসেন, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ইতিহাসবিদ এ কে এম শাহনাওয়াজ, অধ্যাপক এমরান জাহান, ড. আবেদা সুলতানা, সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ, প্রশিক্ষক কাজী সামিও শীশ, পাকিস্তানের মানবাধিকারকর্মী আরিফ আজকিয়া, বেলুচিস্তানের জাতীয় নেতা নবাব মেহেরান মারি, কানাডার লেখক ও গবেষক তাহের আসলাম গোরা; পেরুর কবি, লেখক ও নির্মাতা ওয়াল্টার ভিয়ানোয়েভা আছায়া; নেপালের শিল্পী মুকেশ শ্রেষ্ঠা, যুক্তরাজ্যের লেখক ও গবেষক প্রিয়জিৎ দেবসরকার, অনুবাদক এ এইচ এস মোহাম্মাদ।

১৫ দিনের এ সম্মেলনে বাংলাদেশসহ ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, পেরু, কানাডা, যুক্তরাজ্য ও ‍যুক্তরাষ্ট্র থেকে ২১ জন খ্যাতিমান শিক্ষক, গবেষক, লেখক, নির্মাতা, চিত্রশিল্পী, সাংবাদিক ও মানবাধিকারকর্মী অংশ নেন।

আয়োজনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ওপর গুরুত্বপূর্ণ ২১টি বিষয়ের ওপর প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়। সম্মেলনে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক এ কে এম শাহনাওয়াজ।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্মেলনটি বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড ফেসবুক পেজ, ইউটিউব ও সম্মেলনের ওয়েবসাইট থেকে (http://icbsmr.com/) সম্প্রচারিত হয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্মেলনে সহযোগিতায় ছিল স্বপ্ন ’৭১ প্রকাশন, লন্ডন ১৯৭১, বিজ্ঞানচিন্তা, সিনু, ব্লু কিউব ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা সংসদ। বিজ্ঞপ্তি।

আরও পড়ুন

×