চট্টগ্রামে চাকরির নামে ডেকে এনে আটকে রেখে তরুণীদের পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করার অভিযোগে শাহনাজ বেগম নামে এক নারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রোববার বিকাল পৌনে পাঁচটার দিকে জরুরি সেবা ৯৯৯ এ ফোন পেয়ে পাহাড়তলী থানা পুলিশ নগরীর বাঁচা মিয়া রোডের হেলাল সাহেবের বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে। এ সময় তিন তরুণীকে উদ্ধার করা হয়। সোমবার তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

পাহাড়তলী থানার ওসি হাসান ইমাম বলেন, গ্রেপ্তার শাহনাজ আর তার স্বামী দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে তরুণীদের চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ডেকে এনে বাসায় আটকে রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করতেন। জাতীয় জরুরি সেবার ফোন পেয়ে অভিযান চালিয়ে শাহনাজকে আটক করা হয়েছে। তার স্বামী জাহাঙ্গীর আলমকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে। এ ঘটনায় মানবপাচার আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

পুলিশ জানিয়েছে, পুলিশকে ফাঁকি দিতে শাহনাজ বেগম এবং তার স্বামী জাহাঙ্গীর আলম কিছুদিন পর পর বাসা পরিবর্তন করে। ভবনের মালিক কিংবা কেয়ারটেকারের সাথে সখ্যতা করে দীর্ঘদিন ধরে তারা এ কাজ করে আসছিলেন।