দেশের উন্নয়ন-অগ্রগতি রুখতে ও রপ্তানি বাণিজ্যে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে বিএনপি অবৈধ অর্থে বিদেশে লবিস্ট নিয়োগ করেছে বলে সরকারের পক্ষ থেকে যে দাবি করা হচ্ছে, তা নাকচ করে দিয়েছে বিএনপি।

দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আমি স্পষ্ট করে বলছি, বিএনপি কোনো লবিষ্ট নিয়োগ করেনি। আমরা যা কিছু করি দেশকে রক্ষার জন্য করি। তার মানে এই না যে, আমরা লবিস্ট নিয়োগ করেছি। দ্যাট হেজ টু বি ক্লিয়ার্ড।’

মঙ্গলবার বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিক প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব এই মন্তব্য করেন।

রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। গত সোমবার দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানাতে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে বিএনপি।

গত ১৮ জানুয়ারি সাংবাদিকদের সঙ্গে এক আলাপে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার ও দেশবিরোধী প্রচারণায় ৩ দশমিক ৭৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয় করে বিএনপি বিদেশে লবিস্ট নিয়োগ করেছে।’

এসময় তিনি জানান, বিএনপি -জামায়াতের অপপ্রচারমূলক প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ছাপানোর জন্য ২০১৫ সালে একটি পিআর ফার্ম নিয়োগ করে সরকার। এই প্রতিষ্ঠানকে প্রতি মাসে ২৫ হাজার মার্কিন ডলার পরিশোধ করা হয়। বিএনপি-জামায়াত বিদেশি লবিস্ট নিয়োগে ৮টি চুক্তি করেছে। এর মধ্যে তিনটি চুক্তি করেছে বিএনপি। 

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে এক অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘আমাদের কাছে যথেষ্ট তথ্য আছে, বিএনপি অনেকগুলো লবিস্ট নিয়োগ করেছে। এটা কিন্তু খুবই অন্যায়। এর মূল উদ্দেশ্য দেশের ক্ষতি।’

সরকারের এই ধারাবাহিক সমালোচনার জবাবে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আমরা লবিস্ট নিয়োগ করেছি- এটা  একেবারে সঠিক না। এ নিয়ে কারও মধ্যে কোনো সন্দেহ থাকবে না বলেই বিশ্বাস করি।’