রাজধানীর গুলশান থানায় মাদক ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে করা মামলায় দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন আওয়ামী লীগ থেকে বহিস্কৃত হেলেনা জাহাঙ্গীর। ঢাকা মহানগর হাকিম ধীমান চন্দ্র মণ্ডল তার জবানবন্দি গ্রহণ করেন। এরপর বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এদিকে পল্লবী থানার প্রতারণা মামলায় জামিন পাননি তিনি।

জানা যায়, বুধবার আদালতে হেলেনা জাহাঙ্গীরের আইনজীবী শফিকুল ইসলাম প্রতারণার মামলায় জামিন আবেদন করেন। শুনানি শেষে তা নাকচ করে দেন ঢাকা মহানগর হাকিম মোহাম্মদ জসীম। চার মামলার মধ্যে গত মঙ্গলবার টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় ২০ হাজার টাকার মুচলেকায় জামিন পান হেলেনা।

সূত্র জানায়, গুলশান থানায় করা মাদক ও বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রিমান্ড শেষে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে গতকাল আদালতে হাজির করেন। একইসঙ্গে আসামি স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হওয়ায় তা রেকর্ড করার আবেদন করেন। এরপর বিচারক জবানবন্দি গ্রহণ করেন। ৩ আগস্ট পৃথক চার মামলায় তার ১৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিলেন আদালত।

গত ২৯ জুলাই গুলশানের বাসায় অভিযান চালিয়ে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আটক করে র‌্যাব। পরে তার বিরুদ্ধে পল্লবী ও গুলশান থানায় মোট চারটি মামলা করা হয়।