চট্টগ্রামে অরক্ষিত নালায় পড়ে একের পর এক মৃত্যুর ঘটনায় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) ও চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষকে (সিডিএ) দায়ী করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নেতারা। এসব ঘটনায় মৃত ব্যক্তিদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার পাশাপাশি সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানিয়েছেন তারা।

বুধবার পাঁচ দফা দাবিতে নগরের আগ্রাবাদ মোড় থেকে দেওয়ানহাট মোড় পর্যন্ত মানববন্ধনে এসব কথা বলেন নেতারা।

তাদের অন্য দাবিগুলো হলো- দায়িত্বহীনতার দায়ে চসিক ও সিডিএ কর্মকর্তাদের সুষ্ঠু বিচারের আওতায় আনতে হবে, দেওয়ানহাট-এয়ারপোর্ট রোড এবং পোর্টকানেক্টিং রোড দ্রুত যানবাহন যাতায়াতের উপযোগী ও দখলমুক্ত নিরাপদ ফুটপাতের ব্যবস্থা করা, সব উন্নয়ন কর্মযজ্ঞে জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং চট্টগ্রামের স্থায়ী জলাবদ্ধতা নিরসনসহ পরিকল্পিত মেগাসিটি গড়া।

সংগঠনের নগর সভাপতি জান্নাতুল ইসলামের সভাপতিত্বে বক্তারা বলেন, চসিক-সিডিএর রেষারেষি ও দায়িত্বহীনতায় শহর বর্তমানে অনিরাপদ নগরীতে পরিণত হয়েছে। দুই সংস্থার কারণে অকালেই অনেকের প্রাণ ঝরে পড়ছে। একের পর এক ঘটনায় প্রাণহানি হলেও টনক নড়ছে না কর্তৃপক্ষের। একে অপরের ওপর দোষ চাপিয়ে শেষ করছেন দায়িত্ব। তাদের এমন আচরণে উদ্বেগ বাড়ছে।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের নগর সহসভাপতি আবুল কাশেম মাতবর, নুরুল ইসলাম বিএসসি, সেক্রেটারি আল মুহাম্মদ ইকবাল, সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. রেজাউল করিম রেজা, রেদওয়ানুল হক শামসী, তরিকুল ইসলাম, মুফতি ইব্রাহীম আনোয়ারী, যুবনেতা তাজুল ইসলাম শাহীন, শ্রমিক নেতা ওয়ায়েজ হোসেন ভূঁইয়া, নোয়াব মিয়া, মুহাম্মদ ইব্রাহীমসহ শতাধিক নেতাকর্মী অংশ নেন।