পরিবেশসম্মতভাবে চিকিৎসা বর্জ্য পুড়তে ইনসিনেরেটর স্থাপন করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন। 

মঙ্গলবার নগরের হালিশহরের আনন্দবাজারে স্থাপিত ইনসিনেরেটরের উদ্বোধন করেন সিটি মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী। 

জাপানের সাহায্য সংস্থা জাইকার অর্থায়নে ও সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে যন্ত্রটি স্থাপন করা হয়। 

জানা যায়, যন্ত্র স্থাপনে ব্যয় হয়েছে ৩ কোটি ৬৬ লাখ টাকা। প্রতিদিন পাঁচ টন চিকিৎসা বর্জ্য পুড়ানো যাবে। 

জাইকার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, চট্টগ্রাম নগরে প্রতিদিন গড়ে দেড় টন চিকিৎসা বর্জ্য উৎপাদিত হয়। বর্তমানে সিটি করপোরেশন এলাকা থেকে চট্টগ্রাম সেবা সংস্থা নামের একটি প্রতিষ্ঠান চিকিৎসা বর্জ্য সংগ্রহ করে। এখন থেকে সিটি করপোরেশনকে ফি দিয়ে সে সব বর্জ্য পোড়াবে প্রতিষ্ঠানটি।

অনুষ্ঠানে সিটি মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, করোনার সময় যেখানে সেখানে মাস্ক ও গ্লাভস ফেলা হয়েছে। এতে সংক্রমণ মারাত্মকভাবে ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি তৈরি হয়েছে। এই ধরনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় ইনসিনেরেটর স্থাপন করা হয়েছে। 

সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শহীদুল আলমের সভাপতিত্বে ও প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মলয় চৌধুরী।