কক্সবাজারের পেকুয়ায় ফসলি জমি থেকে হাত-পায়ের রগ কাটা অবস্থায় এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের বাগগুজারা নুইন্যামুইন্যা ব্রীজ সংলগ্ন এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত ওই নারীর নাম মোহছেনা আক্তার (৩৭)। তিনি কক্সবাজার সদরের বৈধঘোনা খাঁজা মঞ্জিল এলাকার ছাবের আহমদের মেয়ে ও মৃত আবু তৈয়বের স্ত্রী। তার ২ ছেলে ১ মেয়ে রয়েছে।

ঘটনার খবর পেয়ে পেকুয়া থানার ওসি (তদন্ত) কানন সরকার ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করেন।  

প্রত্যক্ষদর্শী নজরুল ইসলাম, হেফাজ উদ্দিন জানান, সকালে বোরো চাষের জন্য জমিতে কয়েকজন শ্রমিক কাজ করতে যায়। এ সময় বিলের মাঝে ওই নারীর মরদেহ দেখতে পান। পরে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়।

স্থানীয়দের ধারণা, ওই নারীকে অন্য কোথাও খুন করে গভীর রাতে বিলে ফেলে রেখে চলে যায় ঘাতকরা। লাশের পাশে থাকা ব্যাগের ভেতর একটি মুঠোফোন, ভোটার স্মার্ট কার্ড ও অল্প কিছু টাকা ছিল। লাশের বিশ হাত দূরে একটি ধারালো ছোরা মাটিতে পুঁতা ছিল।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খবরটি ছড়িয়ে পড়লে ডুলহাজারা এলাকার বাসিন্দা কামাল উদ্দিন এসে লাশটি তার শাশুড়ির মরদেহ শনাক্ত করেন। তার দাবি,তার শাশুড়িকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। তিনি শাশুড়ির হত্যাকারীদের শাস্তি দাবি করছি।

এ ব্যাপারে পেকুয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী  ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,সিআইডি ক্রাইমসিন তদন্ত করছে। পিবিআই টিমও আসছে। নিহতের ছেলে ও স্বজনরা এসেছেন।  

ওসি আরও বলেন, ওই নারীকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, অন্য কোথাও খুন করে গভীর রাতে হয়তো লাশ এখানে ফেলে চলে গেছে কেউ। তবে কি জন্য, কেন খুন তাকে করা হয়েছে তা বলা যাচ্ছে না। সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে লাশ মর্গে পাঠানো হবে বলেও জানান তিনি।