বানভাসিরা পর্যাপ্ত সরকারি ত্রাণ সামগ্রি পাচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। রোববার দুপুরে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ত্রাণ কমিটির আহ্বায়ক ও দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু এ অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, সারাদেশে বন্যার্ত ও বানভাসি মানুষ না খেয়ে বিনা চিকিৎসায় মারা যাচ্ছে, সরকার পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ দিতে পারছে না। বন্যার্ত মানুষ বলছে, তারা সরকারি ত্রাণ পাচ্ছে না। সাধারণ মানুষজনদের জিজ্ঞেস করলে তারা হাত তুলে বলছে, আমরা সরকারি ত্রাণ পাইনি। জনগণের কল্যাণ এখন আর এই সরকারের লক্ষ্য নয়। মেগা প্রজেক্ট নিয়ে তাদের মনোযোগ। কারণ সেখানেই লাভ বেশি, মধু বেশি। এখন এই মেগা প্রজেক্টগুলো দুর্নীতি আর টাকা পাচারের উৎস্য হয়ে উঠেছে।

সিলেট-সুনামগঞ্জ-কিশোরগঞ্জ-নেত্রকোনা-ফেনী-কুড়িগ্রামসহ বিভিন্ন স্থানে বিএনপি নেতৃবৃন্দের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণে ক্ষমতাসীন দলের বাধা দেওয়ার অভিযোগ বিশেষ করে ফেনীর ফুলগাজী ও গাজীপুরে সরকারি দল ও পুলিশের বাধা দেওয়ার ঘটনা তুলে ধরেন ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।

টুকু অভিযোগ করে বলেন, বন্যা কবলিত এলাকায় শুধু ত্রাণের অভাবই নয়, সেখানে ওষুধপত্রের অভাব প্রকট আকার ধারণ করেছে। সেখানে না গেলে বোঝা যাবে না, কী ভয়াবহ অবস্থা। এখন বন্যা কবলিত হাওর এলাকায় চর্মরোগ হচ্ছে। ওষুধের অভাবে বন্যার্তরা হলুদ আর কেরোসিন তেল লাগাচ্ছে গায়ে।

এক প্রশ্নের জবাবে দলের ত্রাণ কমিটির প্রধান বলেন, আমরা যেখানে গেছি, সরকারি ত্রাণ দেখি নাই। আমরা যাচ্ছি, সরকারি কর্মকর্তারা ফেরত আসছে বা যাচ্ছে এ রকম কোনো গাড়ি বা নৗকা বলেন, কোনোটাই হাওর এলাকায় দেখি নাই।

বিএনপি তার সীমিত সামর্থ্য নিয়ে বন্যার্তদের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের সেবা করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে বানভাসি মানুষের পাশে দাঁড়ানোকে সর্বোচ্চ অধিকার দিচ্ছি। এটা দলীয় সিদ্ধান্ত। দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যরা ত্রাণ দিতে প্রত্যন্ত অঞ্চলে যাচ্ছেন। বিএনপিসহ যুব দল, স্বেচ্ছাসেবক দল, কৃষক দল, মহিলা দল, ছাত্র দলসহ সব অঙ্গসংগঠন এখন বন্যার্তদের পাশে রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, গণমানুষের দল হিসেবে বিএনপি এরইমধ্যে লক্ষাধিক পরিবারকে নানাভাবে সহযোগিতা করেছে। এবার পানিবন্দি মানুষদের উদ্ধার করে নিরাপদ আশ্রয়স্থলে নিয়ে যাওয়া, ত্রাণ বিতরণ, চিকিৎসা, ওষুধপত্র বিতরণ, গৃহনির্মাণ, কৃষকদের সহযোগিতা, বীজতলা সরবারহ প্রভৃতির মাধ্যমে বন্যার্তদের সহযোগিতা করছি। এই কার্যক্রম আমাদের অব্যাহত আছে, থাকবে।

সংবাদ সম্মেলনে দলের প্রচার সম্পাদক শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি ও ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক আমীনুর রশিদ ইয়াসিন উপস্থিত ছিলেন।