চট্টগ্রাম নগরের বিভিন্ন ফুটপাত থেকে দুই শতাধিক অবৈধ দোকান উচ্ছেদ করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন। রোববার দিনভর নগরের বিভিন্ন এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়।

এতে নেতৃত্ব দেন সিটি করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাসিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলী ও স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট মনীষা মহাজন। এসময় সিটি মেয়রের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেম ও আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা জুনাইদ কবির সোহাগ উপস্থিত ছিলেন।

অভিযানে ফুটপাতে চলাচলে প্রতিবন্ধকতা তৈরির দায়ে ১১ ব্যক্তিকে ৪২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এদিকে পৃথক অভিযানে সরকারি কলোনীতে অবৈধভাবে স্থাপনা নির্মাণ করে বসবাস করা ২০ পরিবারকে উচ্ছেদ করেছে জেলা প্রশাসন।

নগরের জিইসি মোড়, গোলপাহাড়, শুলকবহর থেকে বহদ্দারহাট হয়ে নতুন চান্দগাঁও থানা পর্যন্ত রাস্তার উভয়পাশের ফুটপাত ও সড়ক অবৈধ দখল মুক্ত করা হয়।

এসময় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালামাল রাস্তা ও ফুটপাতে রেখে যান এবং জন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা তৈরির দায়ে চার ব্যক্তিকে ২৪ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

নগরের ফিরিঙ্গীবাজার এলাকায় পৃথক অভিযানে রাস্তা ও ফুটপাতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালামাল ও নির্মাণ সামগ্রী রাখার দায়ে সাত ব্যক্তিকে ১৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। উভয় অভিযানে ফুটপাতে গড়ে উঠা প্রায় দুই শতাধিক দোকান উচ্ছেদ করা হয়। একইসঙ্গে নির্মাণাধীন ভবনে পানি জমে থাকায় এক ভবন মালিককে সতর্ক করা হয়।

এদিকে নগরের নাসিরাবাদ সিঅ্যান্ডবি সরকারী কলোনীতে অবৈধভাবে স্থাপনা নির্মাণ করে বসবাস করা ২০টি পরিবারকে উচ্ছেদ করেছে জেলা প্রশাসন। অভিযানে নেতৃত্ব দেন কাট্টলী সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক।