রোহিঙ্গাদের জোর করে ফেরত পাঠানো হবে না: মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী

প্রকাশ: ০৯ জুন ২০১৯     আপডেট: ০৯ জুন ২০১৯   

উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

রোববার উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্পে সরকারি কর্মকর্তা ও রোহিঙ্গা নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় আ. ক. ম. মোজাম্মেল হক। ছবি: সমকাল

রোববার উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্পে সরকারি কর্মকর্তা ও রোহিঙ্গা নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় আ. ক. ম. মোজাম্মেল হক। ছবি: সমকাল

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ. ক. ম. মোজাম্মেল হক বলেছেন, মিয়ানমারে পূর্ণ নাগরিকত্ব না পাওয়া পর্যন্ত জোর করে কোনো রোহিঙ্গাকে ফেরত পাঠানো হবে না। রোববার উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্পে সরকারি কর্মকর্তা ও রোহিঙ্গা নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

মন্ত্রী রোহিঙ্গা নেতাদের কাছে ক্যাম্পে কী কী সমস্যা রয়েছে জানতে চান। জবাবে রোহিঙ্গা নেতারা বলেন, চিকিৎসা, শিক্ষা, রাত্রিকালীন নিরাপত্তার ঘাটতি রয়েছে। এ ছাড়া অনেক এনজিও রোহিঙ্গাদের সঙ্গে সমন্বয় না করে দায়সারাভাবে কাজ করছে। এসব সমস্যা ও অভিযোগ মন্ত্রী গুরুত্ব সহকারে শোনেন ও সমাধানের আশ্বাস দেন। তিনি এসব কথা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবহিত করবেন বলেও জানান।

আরকান সোসাইটি ফর ইফস হিউম্যান রাইটসের সভাপতি মাস্টার মহিবুল্লাহ মন্ত্রীকে বলেন, আশিয়ান ২ বছরে ৫ লাখ রোহিঙ্গা মিয়ানমারে ফেরত নেওয়ার যে কথা বলছে, তা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। রোহিঙ্গাদের অবাধ চলাফেরার স্বাধীনতা, জমি-জমা ও শিক্ষার ব্যবস্থা না করলে কখনও রোহিঙ্গারা ফেরত যাবে না।

এ সময় বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার আবুল কালাম, উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিকারুজ্জামান চৌধুরী, সহকারী পুলিশ সুপার (উখিয়া সার্কেল) নাহিয়ান আদনান তাহিয়ান, ক্যাম্প ইনচার্জ রেজাউল করিম, পাবেল ও রোহিঙ্গা নেতারা।