‘আমাদের মূল্যবোধের জায়গা হারিয়ে গেছে’

 প্রকাশ : ২৭ জুন ২০১৯ | আপডেট : ২৭ জুন ২০১৯      

 অনলাইন ডেস্ক

২০১২ সালের বিশ্বজিৎ হত্যাকাণ্ডের মতো আবারও প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটল দেশে। বুধবার সকালে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে রিফাত শরীফ নামের এক যুবককে তার স্ত্রীর সামনে কুপিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। পাশে থাকা অনেকে এ তাণ্ডব দেখলেও কেউ সন্ত্রাসীদের ঠেকানোর চেষ্টা করেনি । বিশ্বজিৎ হত্যাকাণ্ডের সময় অনেকে ছবি তুললেও কেউ আসেনি তাকে বাঁচাতে। রিফাত হত্যাকাণ্ডে করা হয়েছে ভিডিও। এরই মধ্যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক মাধ্যমে। হাইকোর্ট বর্বরোচিত এই ঘটনার পদক্ষেপ জানতে চেয়েছে। সেই সঙ্গে সমাজ কোথায় যাচ্ছে এমন প্রশ্নও রেখেছে। নৃশংস এই ঘটনা নিয়ে সমকাল অনলাইনের সঙ্গে কথা বলেছেন বিশিষ্ট কথা সাহিত্যিক সেলিনা হোসেন

বরগুনার সরকারি কলেজের সামনে যে ঘটনাটা ঘটেছে তা অত্যন্ত লজ্জাজনক, ভয়াবহ, অমানবিক ও পৈশাচিক একটি ঘটনা। এমন ঘটনায় মানুষ হিসেবে আমাদের পরিচয় হারানোর মতো অবস্থা দাঁড়িয়েছে। এ ধরনের ঘটনা প্রজন্মকে ডুবিয়ে দিতে পারে। আমি ভাবতে পারি না, একজন স্ত্রী, একজন মেয়ে যখন তার স্বামীকে বাঁচাতে রাস্তায় দাঁড়িয়ে চিৎকার করছে তখন কেউ এগিয়ে আসছে না।এই ঘটনা আবারও প্রমাণ করে– আমাদের সমাজব্যবস্থা এখন এই পর্যায়ে পৌঁছে গেছে যেখানে মানুষের অনুভূতিগুলো ভোঁতা হয়ে গেছে। এ ধরনের ঘটনা আগেও হয়েছে। কিন্তু বিচার হয়নি। আদালত এ ঘটনায় তদন্ত ও মামলার  অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চেয়েছে। শুধু জানতে চাইলেই হবে না। আদালতের এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার করতে হবে।

আমাদের ভেবে দেখা দরকার, বিচারহীনতার অপসংস্কৃতি সমাজে এমন ঘটনা ঘটাতে উদ্বুদ্ধ করছে কিনা। আমাদের মূল্যবোধের জায়গা হারিয়ে গেছে। এসব ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না করে সমাজকে আমরা তলানির দিকে ঠেলে দিচ্ছি। এটা ভাববার বিষয়, তলানির দিকে যেতে যেতে সমাজকে না গ্রাস করে ফেলে বিচারহীনতার এই অপসংস্কৃতি।