অস্ত্রোপচারে রোগীর দুটি কিডনিই কেটে ফেলায় ঘটনা তদন্তে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতাল থেকে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করেছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। বুধবার কমিশনকে প্রয়োজনীয় নথিপত্র হস্তান্তর করেছেন বিএসএমএমইউর পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জুলফিকার আহমেদ।

দুই বছর আগে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে অস্ত্রোপচার করে এক রোগীর দুটি কিডনিই কেটে ফেলায় চার চিকিৎসককে আসামি করে হত্যা মামলা হয়। ওই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে হাসপাতালের বিভাগীয় তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়েছে। এ মামলায় শাহবাগ থানায় করা মামলায় ওই চারজনকে এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার ওসি মোহাম্মদ মামুন অর রশীদ জানান, খুব শিগগিরই আসামিদের গ্রেপ্তারের বিষয়ে দৃশ্যমান অগ্রগতি পাওয়া যাবে।

কিডনি জটিলতায় ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে রওশন আরা বেগমকে ভর্তি করা হয়। অস্ত্রোপচার করে তার বাঁ পাশের কিডনি ফেলে দেওয়া হয়। এরপর অসুস্থ হয়ে পড়েন রওশন আরা বেগম। পরে পরীক্ষা করে দেখা যায়, তার দুই কিডনিই নেই। মাস দুয়েক অসুস্থ থাকার পর তিনি মারা যান।

মন্তব্য করুন