স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, গাজীপুরের জেলা প্রশাসন ও কারা অধিদপ্তরের গঠিত তিনটি কমিটির পৃথক তদন্ত প্রতিবেদনে কারাবন্দি লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুকে স্বাভাবিক মৃত্যু (ন্যাচারাল ডেথ) হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তবে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে চূড়ান্তভাবে জানা যাবে বলেও জানান তিনি। 

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি রাতে গাজীপুরের কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কারাগারে বন্দি অবস্থায় লেখক মুশতাক আহমেদ মারা যান। এই মৃত্যু নিয়ে সারাদেশে সমালোচনার ঝড় ওঠে। মুশতাকের মৃত্যুতে কারা কর্তৃপক্ষের কোনো গাফিলতি ছিল কিনা, যদি থাকে তবে দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করতে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগ। এ ছাড়া গাজীপুর জেলা প্রশাসন ও কারা অধিদপ্তরের পক্ষ থেকেও তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। সব কমিটিই ইতোমধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে।

এ প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা সব রিপোর্টই পেয়েছি। চূড়ান্ত পোস্টমর্টেম রিপোর্টের পর আরও বিস্তারিত জানতে পারব। এ পর্যন্ত আমাদের কাছে যা আসছে, তার মূল কথা হচ্ছে এটা ন্যাচারাল ডেথ। তাকে (মুশতাক) কেউ মারেনি, তার স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। তিনি বাথরুমে গিয়েছিলেন। যাওয়ার পর সেখানেই তিনি অজ্ঞান হয়েছিলেন। পরে তাকে কারাগারে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এরপর উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।