গাড়ি চুরি ও দোকান লুট চক্রের চার সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। শনিবার গাজীপুর থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলো-সিদ্দিকুর রহমান, হেমায়েত হোসেন ওরফে হিমু, নুরু মিয়া ও আবুল বাশার। তাদের কাছ থেকে একটি প্রাইভেটকার, একটি মোটরসাইকেল, একটি তালা কাটার কার্টারসহ চুরির কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জাম জব্দ করা হয়।

আসামিরা কৌশলে দিনের বেলায় ফেরিওয়ালা সেজে গাড়ি ও দোকানপাটের খোঁজখবর নিত। কোন দোকান ও বাড়িতে নিরাপত্তাকর্মী থাকে না সেই খবরও আগে নিত তারা। গভীর রাতে সুবিধামতো সময়ে চুরি ছিনতাই করত। রোববার মিন্টোরোডে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

ডিবির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার কে এম হাফিজ আক্তার জানান, মিরপুর এলাকায় একটি চুরির ঘটনায় গত ৬ জানুয়ারি মিরপুর মডেল থানায় মামলা হয়। মামলাটির ছায়া তদন্ত শুরু করে ডিবির লালবাগ বিভাগ। চক্রের চার সদস্যকে ডিবি গ্রেপ্তার করে। এ চক্রের মূল কাজ গাড়ি ছিনতাই। ছিনতাই করা গাড়ি ব্যবহার করে ঢাকার আশেপাশে আশুলিয়া, গাজীপুর ও ঢাকার উত্তরায় বাজার ও দোকানের মালপত্র লুট করে। চুরি ছিনতাইয়ের কাজ শেষ হলে ছিনতাই করা গাড়ি কখনো নির্জন জায়গায় ফেলে রাখত। এ ছাড়া চক্রটি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়েও ছিনতাই করত। গাড়ি চুরি বা ছিনতাই রোধে গাড়িতে ট্র্যাকার মেশিন ব্যবহার করার জন্য অনুরোধ জানান ডিবির এই কর্মকর্তা।