কানাডায় চাকরি দেওয়ার কথা বলে মোহাম্মদ জুলহাস নামে এক ব্যক্তিকে ভিয়েতনামে নিয়ে দালাল চক্রের কাছে বিক্রি করে দেওয়া হয়। কৌশলে সেখান থেকে পালিয়ে দেশে ফিরতে পারলেও বিদেশে যাওয়ার জন্য দেওয়া টাকা আর ফেরত পাননি তিনি। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মুন্সি আবদুল্লাহ আল জাকিরকে বুধবার রাজধানীর শাহজাহানপুর থেকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

র‌্যাব-৩-এর সহকারী পরিচালক (গণমাধ্যম) এসএসপি ফারজানা হক জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আবদুল্লাহ চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্নজনকে ভিয়েতনামে পাচারের কথা স্বীকার করেছে। চাকরিপ্রত্যাশীদের সেখানে আটকে রেখে তাদের পরিবারকে ভয় দেখিয়ে মুক্তিপণ আদায় করে সে। এভাবে আবদুল্লাহ বিপুল অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে।

অন্যদিকে, র‌্যাবের একটি দল ঢাকার কদমতলীর শ্যামপুর বাজার থেকে মানব পাচারের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে। তারা হলো মো. মুন্না, আনোয়ার হোসাইন ও ইমরান।

র‌্যাব-১০-এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মাহফুজুর রহমান জানান, গ্রেপ্তাররা পেশাদার নারী ও শিশু পাচারকারী। তারা দীর্ঘদিন ধরে পরস্পরের যোগসাজশে অবৈধভাবে নারী-শিশুদের বিভিন্ন দেশে পাচার করে আসছিল। ওই নারী-শিশুদের বিদেশে নিয়ে যৌনকর্মী হিসেবে কাজ করতে বাধ্য করা হতো।

মন্তব্য করুন