‘আপনার ননদ রিনাকে মেরে ফেলেছি। লাশ ঘরে আছে। আপনারা গিয়ে নিয়ে যান’-এক স্বজনকে ফোন দিয়ে এভাবেই খবর দেন জাহাঙ্গীর হোসেন ওরফে জাকির। এরপরই পালিয়ে যান তিনি। খবর পেয়ে পুলিশও বাসার ভেতর গিয়ে পায় রিনা আক্তারের (২৭) নিথর দেহ। বুধবার রাজধানীর জুরাইন এলাকায় ঘটে এই হত্যাকাণ্ড।

পুলিশ বলছে, চলতি মাসেই জাকির-রিনা দম্পতি জুরাইনের দারোগা মোড়ের ভাড়া বাসায় উঠেন। সকাল ১০টার দিকে জাকির রিনার ভাবিকে ফোন দিয়ে হত্যাকাণ্ডের কথা জানান। এরপর স্বজনেরা ছুটে যান ওই বাসায়। খবর পেয়ে পুলিশও ঘটনাস্থলে যায়। এরপর রিনার দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়। পলাতক জাকির পেশায় রিকশা চালক।

কদমতলী থানার উপপরিদর্শক রোমানা নাসরিন ইতি সমকালকে বলেন, রিনার গলায় দাগ রয়েছে। প্রাথমিক আলামতে মনে হয়েছে, তাকে শ্বাসরোধে হত্যার পর তার স্বামী জাকির পালিয়েছেন। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। রিনা জাকিরের দ্বিতীয় স্ত্রী বলে জানা গেছে। তাদের কোনো সন্তান নেই। 



বিষয় : জাহাঙ্গীর হোসেন ওরফে জাকির রিনা আক্তার রাজধানীর জুরাইন

মন্তব্য করুন