খুলনা সিভিল সার্জন অফিস ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষক এস এম গোলাম কিবরিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। 

এক কোটি ১১ লাখ ৮৯ হাজার টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগের মামলায়  মঙ্গলবার খুলনা মহানগর বিশেষ আদালতের বিচারক মো. শহিদুল ইসলাম এ পরোয়ানা জারি করেন। তাকে গ্রেপ্তার করতে না পারলে তার বাড়ির মালপত্র ক্রোকের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আদালতের পিপি ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী খন্দকার মজিবর রহমান জানান, সিভিল সার্জন অফিস ও হাসপাতালে দায়িত্বে থাকাকালে গোলাম কিবরিয়া বিপুল পরিমাণ সরকারি অর্থ আত্মসাৎ করেছেন। দুদক তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন অপরাধ ও মানি লন্ডারিং আইনে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও এই আয়ের উৎস গোপন করার অভিযোগে মামলা করে। মামলার বাদী দুদকের উপসহকারী পরিচালক ফয়সাল কাদের।

তিনি জানান, মহানগর বিশেষ আদালতে মামলার শুনানি শেষে গোলাম কিবরিয়াকে গ্রেপ্তারের জন্য সংশ্নিষ্ট থানাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে গ্রেপ্তার করা না গেলে তার বাড়ির মালপত্র ক্রোকের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।