হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তল্লাশি করে ৩ কেজি হেরোইনসহ এক বিদেশি নাগরিককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে ঢাকা কাষ্টমস হাউজ।

বতসোয়ানা থেকে আসা ওই নারী যাত্রীর নাম লেসেডি মোলাপিসি। পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনায় রোববার রাত ১০টায় ঢাকা কাষ্টমস কর্মকর্তা বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে বিমানবন্দর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। 

ঢাকা কাষ্টমস কর্মকর্তারা জানান, রোববার কাতার এয়ারলাইন্সের একটি কিউআর ৬৩৮ ফ্লাইটে বিকেল সাড়ে চারটায় বিমানবন্দরে অবতরণ করে সে। এসময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তার লাগেজ তল্লাশি করা হয়। তার লাগেজে থাকা একটি ভ্যানিটি ব্যাগের মধ্যে সুকৌশলে লুকিয়ে রাখা পলিথিন ব্যাগ থেকে জব্দ করা হয় প্রায় ৩ কেজির বেশী (৩ হাজার ১৪৫ গ্রাম) হেরোইনের চালান। 

খবর পেয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছান। তারা ওই জব্দ পণ্য হেরোইন বলে প্রাথমিকভাবে শনাক্ত করেন। 

এ ব্যাপারে ঢাকা কাষ্টমস হাউজের ডেপুটি কমিশনার মো. সানোয়ার হোসেন সমকালকে বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে গোপন খবর ছিল কাতার ফ্লাইটে বিদেশী এক নারী কোকেনের চালান বহন করে বিমানবন্দরে অবতরণ করবে। এসময় জানার পর ওই কাতার ফ্লাইটের প্রতি নজর রাখা হয়। এসময় ইমিগ্রেশনে আনুষ্ঠানিকতা শেষে কাষ্টমস হলে লেসেডি মোলাপিসি নামে ওই নারী যাত্রীকে সনাক্ত করা হয়।’

কাষ্টমস কমিশনার সানোয়ার আরও জানান, পরীক্ষাগারে জব্দ পণ্য কোকেন হিসেবে প্রমাণিত হলে তার বাজার মূল্য হবে প্রায় ১০০ কোটি টাকা, আর হেরোইন হিসেবে প্রমাণিত হলে তার বাজার মূল্য হবে প্রায় ২০ কোটি টাকা। 

সানোয়ার হোসেন বলেন, ‘লেসেডি মোলাপিসি প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন, মাদকের চালানটি বিমানবন্দর থেকে একজন রিসিভ করতে আসার কথা ছিল।’