দুদকের দায়ের করা মামলার কার্যক্রম স্থগিত চেয়ে কপবাজার-৪ আসনের সাবেক এমপি আবদুর রহমান বদির করা আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে এক বছরের মধ্যে মামলাটি সংশ্নিষ্ট নিম্ন আদালতকে নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দেওয়া হয়।

এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দ সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রোববার উভয়পক্ষের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।
আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী রফিকুল ইসলাম সোহেল। দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক। এ আদেশের ফলে বদির বিরুদ্ধে করা মামলা চলবে বলে জানিয়েছেন দুদকের আইনজীবী।
৫৬ লাখ ১১ হাজার ৫০০ টাকার সম্পদের গোপন ও ৭৯ লাখ ৩৭ হাজার ৭৯৭ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ২০০৭ সালের ১৭ ডিসেম্বর বদির বিরুদ্ধে মামলা করেছিল দুর্নীতি দমন কমিশন। দীর্ঘদিন স্থগিত থাকার পর মামলাটির কার্যক্রম ২০১৭ সালে সচল হয়।
এ মামলায় ২০২০ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর তাঁর অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে অভিযোগ গঠন করে আদেশ দেন চট্টগ্রামের বিচারিক আদালত। ওই আদেশ বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে রিভিশন করেন বদি। সেটি গত ১৮ জানুয়ারি উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দেন আদালত। এরপর বিচারিক আদালতে মামলা স্থগিতের আবেদন করেন বদি। সেটি ১৮ এপ্রিল খারিজ করে দেন বিচারিক আদালত। পরে হাইকোর্টে আবেদন করেন তিনি।