হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফ্লাইট ক্যাটারিং সেন্টারের কর্মী মো. আব্দুল আজিজ আকন্দকে ৮ কেজি স্বর্ণসহ আটক করেছে ঢাকা কাস্টম হাউস। 

ঢাকা কাস্টম হাউসের উপ-কমিশনার মো সানোয়ারুল কবির সমকালকে জানান, বুধবার রাত ৮টার দিকে আব্দুল আজিজকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পরে পর তার দেহ তল্লাশি করে কালো স্কসটেপ দিয়ে মোড়ানো ৪টি সোনার বারের বান্ডেল উদ্ধার করা হয়; যার আনুমানিক ওজন প্রায় ৮ কেজি। উদ্ধার হওয়া এই স্বর্ণের বাজারমূল্য প্রায় সাড়ে ৬ কোটি টাকা।


দেশে আসা এই সোনা দুবাই ফেরত একটি বিমানের মাধ্যমে বাংলাদেশে আসে। এরপর আব্দুল আজিজের মাধ্যমে এই সোনা পাচার হওয়ার কথা ছিলো। আটক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ফৌজদারি আইন এবং কাস্টমস আইনে মামলা দায়ের করা হবে।

সানোয়ারুল কবির জানান, আব্দুল আজিজকে গ্রেপ্তারেরও বেশ নাটকীয়তা করেছে বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট ক্যাটারিং সেন্টার।

তিনি বলেন, ঢাকা কাস্টম হাউসের প্রিভেনটিভ ইউনিটের কাছে তথ্য ছিলো বিমানের ক্যাটারিং সার্ভিসে কর্মরত এক ব্যক্তির মাধ্যমে সোনা পাচার হবে। সেই তথ্যের ভিত্তিতে দুপুর ১টার দিকে বিমানের ক্যাটারিং সেন্টারে প্রবেশ করতেই বাঁধার মুখে পড়তে হয়। দুটি গেইটের একটি গেইট দিয়েও প্রবেশ করতে দেওয়া হয় না কাস্টম কর্মকর্তাদের। 

বিমানের ক্যাটারিং সেন্টারের কর্মীরা নানা টালবাহানা করে। এরপর গোয়েন্দা সংস্থা এনএসআই এর মাধ্যমে বিমানের ক্যাটারিং সেন্টারে প্রবেশ করে কাস্টম কর্মকর্তারা। তখন ক্যাটারিং সেন্টার থেকে জানানো হয় আব্দুল আজিজ দুপুর ১টা ৪৯ মিনিটের দিকে অফিস থেকে বেরিয়ে যান।

এরপর দুপুর থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বিমানের ক্যাটারিং অফিসের গেইটের সামনে কাস্টমসের দুইজন ব্যক্তি নজরদারিতে থাকেন। অতপর রাত ৮টার দিকে সোনা চোরাচালানকারী আব্দুল আজিজ বিমানের ক্যাটারিং অফিসের গেইটের সামনে আসেন। এসময় কাস্টম কর্মকর্তারা আব্দুল আজিজকে আটক করেন।