প্রতারণা, জালিয়াতি করে ঋণের নামে সাবেক ফারমার্স ব্যাংকের (বর্তমানে পদ্মা ব্যাংক) ৬৯ কোটি ৬৮ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ব্যাংকটির অডিট কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুল হক চিশতী ওরফে বাবুল চিশতীসহ ছয় জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট পেশ করতে যাচ্ছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার কমিশন এই চার্জশিটের অনুমোদন দিয়েছে। তদন্ত কর্মকর্তা দুদক উপপরিচালক মোহাম্মদ সিরাজুল হক শিগগির আদালতে চার্জশিটটি পেশ করবেন।

জানা গেছে, বাবুল চিশতীসহ অন্য আসামীদের বিরুদ্ধে ঢাকার গুলশান থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়েছিল ২০১৯ সালের ২৯ এপ্রিল।

চার্জশিটে বলা হয়, পরস্পর যোগসাজশে ক্ষমতার অপব্যবহার করে অসৎ উদ্দেশ্যে বিশ্বাস ভঙ্গ করে ঋণের নামে ব্যাংকিং নিয়মনীতির তোয়াক্তা না করে বন্ধকি সম্পত্তির অতি মূল্যায়ন দেখিয়ে নিজ পদের অবৈধ প্রভাব খাটিয়ে ব্যাংকের ওই পরিমাণ অর্থ আত্মসাত করা হয়। 

আত্মসাতের সময় টাকার পরিমাণ ছিল ৫৮ কোটি টাকা। ২০১৮ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্থিতি হয় ৬৯ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। আত্মসাৎকৃত টাকা স্থানান্তর, রূপান্তর ও লেয়ারিং করা হয় যা মানি লন্ডারিং অপরাধ।

চার্জশিটে উল্লেখ করা অন্য আসামিরা হলেন, মেসার্স রোজবার্গ অটো রাইস মিলসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. হযরত আলী, একই প্রতিষ্ঠানের পরিচালক মো. দেলোয়ার হোসেন, সাবেক ফারমার্স ব্যাংক সাবেক নির্বাহী কর্মকর্তা ও ব্যাংকের শেরপুর জেলা শাখা প্রধান উত্তম বড়ুয়া, ব্যাংকের সাবেক ডিএমডি এ কে এম এম শামীম ও সিটি সার্ভে লিমিটেডের এমডি মো. খায়রুল আলম।