রাজধানীর উত্তরায় নভোএয়ারের ফ্লাইট অপারেশন অফিসে চুরির ঘটনায় দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা হলো বিল্লাল হোসেন ওরফে ‘স্পাইডারম্যান’ বিল্লাল ও তার সহযোগী নুরুল্লাহ রাকিব। রোববার এ অভিযান চালানো হয়। পুলিশ জানায়, গত ১০ বছরে পাঁচ শতাধিক চুরি করেছে বিল্লাল।

উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন সমকালকে বলেন, ২৩ সেপ্টেম্বর উত্তরা ৩ নম্বর সেক্টরে নভোএয়ারের ফ্লাইট অপারেশন অফিসে চুরি হয়। এ ঘটনায় প্রথমে ময়মনসিংহ থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বিল্লালকে। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে গাজীপুরের টঙ্গী থেকে রাকিবকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কাছ থেকে ওই অফিস থেকে চুরি করা একটি ল্যাপটপ এবং গ্রিল ভাঙার যন্ত্র উদ্ধার করা হয়।

ওসি জানান, দেয়াল কিংবা পাইপ বেয়েই সে যেকোনো ভবনের পাঁচতলা পর্যন্ত উঠে যেতে পারে বিল্লাল। এ কারণে তাকে স্পাইডারম্যান বিল্লাল বলে চেনে সবাই। মূলত তার টার্গেট বিভিন্ন অফিস। রাতের বেলা অফিসে লোকজন থাকে না। তাই এসব অফিসে গিয়ে ল্যাপটপ চুরি করাই তার প্রধান লক্ষ্য। তবে সবসময় সে ল্যাপটপের ক্রেতা পায় না। তাই বাধ্য হয়ে মাঝে মাঝে ২ হাজার, ১ হাজার এমনকি ৫০০ ও ২০০ টাকায়ও ল্যাপটপ বিক্রি করেছে সে।

তিনি বলেন, বিল্লালের বয়স মাত্র ২২ বছর। এর মধ্যে তার চুরির অভিজ্ঞতাই ১০ বছরের! মাত্র ১২ বছর বয়সেই তাকে দলে নেয় চোরচক্র সাইফুল গ্যাং। শারীরিক গঠনে ছোট হওয়ায় এবং গ্রিল বেয়ে ভবনে উঠতে পারায় সাইফুল তাকে দিয়ে ঘরের ভেতরে ঢুকিয়ে দরজা খোলার কাজে ব্যবহার করেন। কিন্তু এই কাজে সিদ্ধহস্ত হওয়ার সাথে সাথেই সাইফুলের গ্যাং ছেড়ে নিজেই গ্যাং তৈরি করে বিল্লাল।