নওগাঁর ধামইরহাটে বিদেশে চাকরি দেওয়ার কথা বলে পাচারের অভিযোগে বাবা-ছেলেকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। 

বুধবার রাতে উপজেলার ফতেপুর বাজার এলাকার পানহাটি নামক স্থান থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট ক্যাম্পের সদস্যরা।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, ধামইরহাট উপজেলার চকভবানী গ্রামের আবুল কালাম আজাদ (৬০) ও তাঁর ছেলে আবুল হাসনাত (৩৭)। 

এ সময় তাদের কাছ থেকে সৌদির একটি ট্যুরিস্ট ভিসা, পাসপোর্ট ও সৌদি কারাগারের মুক্তিপত্র জব্দ করে র‌্যাব। গ্রেপ্তারকৃতদের বৃহস্পতিবার দুপুরে ধামইরহাট থানায় সোপর্দ করা হয়। পরে তাদরে বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে জেল হাজতে পাঠানো হয়। 

র‌্যাব জয়পুরহাট ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক মেজর মো. মোস্তফা জামান, আর্টিলারি জানান, অভিযুক্তরা বিদেশে উচ্চ বেতনে চাকরি দেওয়ার কথা বলে পাশের গ্রামের মো. অহিদুল ইসলামকে (৩৫) বিদেশে পাঠানোর নামে তার কাছ থেকে ৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা নেয়। পরে চাকরির ভিসার নামে টুরিস্ট ভিসায় অহিদুলকে সৌদি আরবে পাঠায় তারা। সেখানে গিয়ে অহিদুল জানতে পারেন যে তিনি প্রতারিত হয়েছেন এবং তার টুরিস্ট ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে সৌদি পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে জেলে পাঠায়। পরে ২০ দিন সৌদি কারাগারে হাজত খাটার পর মুক্তি পেয়ে অহিদুল দেশে ফিরে আসে। 

তিনি আরও জানান, ভুক্তভোগী অহিদুল দেশে ফিরে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে জয়পুরহাটের র‌্যাব ক্যাম্পে অভিযোগ করেন। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে র‌্যাব তদন্ত শুরু করে এবং তাদের গ্রেপ্তার করে।

এ বিষয়ে ধামইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোজাম্মেল হোসেন কাজী জানান, আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর তাদের জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।