ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯

দক্ষিণ আফ্রিকা

ওডিআই র‌্যাংকিং ৪র্থ

ওটিস গিবসন

ওটিস গিবসন

ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুর্দান্ত এক পেসার ছিলেন ওটিস গিবসন। তবে ক্যারিয়ার থেমেছে মাত্র ২ ওয়ানডে ও..

বিশ্বকাপ

প্রথম বিশ্বকাপ: ১৯৯২

বিশ্বকাপ জয়ী: ০০

বিশ্বকাপ রানারআপ: ০০

ওডিআই

প্রথম ওডিআই: ১৯৯১ সালের ১০ নভেম্বর

মোট ওডিআই: ৬১০

ওডিআই জয়ী: ৩৭৭

ক্রিকেটের তৃতীয় দল হিসেবে ১৮৮৯ সালে টেস্ট মর্যাদা পায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ১৯০৬ সালে টেস্টে প্রথম জয় পায় তারা। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার ওয়ানডে অভিষেক প্রথম টেস্টের এক শতাব্দী পরে। ১৯৯১ সালে ভারতের ইডেন গার্ডেনে প্রথম ওয়ানডে খেলে প্রোটিয়ারা।

১৯৭০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটে বর্ণবাদ প্রকট আকার ধারণ করে। তারা নিজ দেশের কৃষ্ণাঙ্গদের জাতীয় দলে নিতো না। এরপর তারা শ্বেতাঙ্গ ছাড়া কোনো দলের বিপক্ষে ক্রিকেট খেলবে না বলে সিদ্ধান্ত নেয়। শুধু ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলবে বলে আইসিসিকে জানায়। এ কারণে আইসিসি তাদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করে। ১৯৯১ সালে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ক্রিকেটে ফেরে দক্ষিণ আফ্রিকা।

ক্রিকেটের বৈশ্বিক আসরে দক্ষিণ আফ্রিকা 'চোকার্স' হিসেবে পরিচিতি। শেষ চার ধাপ তারা পার হতে পারে না। নিজেদের প্রথম বিশ্বকাপে ১৯৯২ সালে তারা সেমিফাইনালে হেরে বিদায় নেয়। ১৯৯৯ বিশ্বকাপে আবার তারা সেমিতে কাটা পড়ে। এরপর ২০০৭ এবং ২০১৫ বিশ্বকাপেও তাদের দৌড় থামে সেমিফাইনালে। গেল বছরগুলোতে দক্ষিণ আফ্রিকা অন্যতম ফেবারিট হয়েও সেমিতে বিদায় নিয়েছে। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে তাদের নাম কম উচ্চারিত। এবার তাই চাপহীনভাবে খেলার সুযোগ প্রোটিয়াদের।