ভেন্যু

হ্যাম্পশায়ার বোল

বিশ্বকাপ ম্যাচ: ০৫

ধারণক্ষমতা: ১৭,০০০

নির্মাণ: ২০০১

হ্যাম্পশায়ার বোল বা রোজ বোল ইংল্যান্ডের নবীনতম ভেন্যুগুলোর একটি। হ্যাম্পশায়ারের হোম ভেন্যু সাউদ্যাম্পটনের বিকল্প হিসেবে রোজ বোল নির্মাণ করা হয়। ২০১১ সালে হ্যাম্পশায়ার এখানে তাদের প্রথম ম্যাচ খেলে। ২০০৩ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা ও জিম্বাবুয়ের ম্যাচ দিয়ে এখানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সূচনা হয়। ২০০৫ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইংল্যান্ড তাদের প্রথম টি-২০ ম্যাচ এখানেই খেলে।

এই ভেন্যুতে এখন পর্যন্ত ২৩টি ওয়ানডে ম্যাচ হয়েছে। ২০০৪ সালে এখানে ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। এই ভেন্যুতে টাইগারদের অভিজ্ঞতা মোটেও ভালো নয়। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে একমাত্র সেই ম্যাচে মারভিন ডিলনের বোলিং তোপে মাত্র ১৩১ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। ম্যাচটা হারে ১৩৮ রানে।

এবারই প্রথম বিশ্বকাপ আয়োজনের সুযোগ পেয়েছে রোজ বোল। এবার মোট পাঁচটি ম্যাচ হবে এই স্টেডিয়ামে।

এই মাঠে সর্বোচ্চ ৩৭৩ রান ইংল্যান্ডের। এই বছরই পাকিস্তানের বিপক্ষে এই রান তোলে স্বাগতিকরা। এই ভেন্যুতে সর্বনিম্ন রান যুক্তরাষ্ট্রের। ২০০৪ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাত্র ৬৫ রানে অলআউট হয় দলটি। রোজ বোলে ব্যক্তিগত সবোর্চ্চ রানের রেকর্ডটি কিউই ব্যাটসম্যান মর্টিন গাপটিলের। ২০১৩ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১৫৫ বলে ১৮৯ রান করেন তিনি।