ঘাটাইলে মাদ্রাসাছাত্রীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ২

প্রকাশ: ২৪ জুন ২০১৯     আপডেট: ২৪ জুন ২০১৯      

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে এক মাদ্রাসাছাত্রী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। গত শুক্রবার উপজেলার দশআনি বকশিয়া গ্রামের এ ঘটনায় ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে সোমবার সকালে দু’জনকে আসামি করে ঘাটাইল থানায় মামলা একটি দায়ের করেন। এরপর দুপুরেই ওই দু’জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারা হলেন- উপজেলার দশআনি বকশিয়া গ্রামের সোহরাব আলী তালুকদারের ছেলে আলমগীর হোসেন ও আমীর আলীর ছেলে হামিদ এলাইস আলফিন। 

টাঙ্গাইল আদালতের পরিদর্শক তানবীর আহম্মেদ জানান, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ওই দু’জনের সাতদিনের রিমান্ড চেয়ে সোমবার টাঙ্গাইল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আবেদন করেন। আদালতের বিচারক আবদুল্লাহ আল মাসুম তাদের প্রত্যেকের তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। 

ঘাটাইল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) এনামুল হক চৌধুরী জানান, উপজেলার দশআনী বকশিয়া গ্রামের একটি মাদ্রাসার সপ্তম শ্রেণির ওই ছাত্রী গত শুক্রবার বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে বাড়ি থেকে বের হয়। এ সময় আলমগীর ও হামিদ তাকে বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে নিয়ে যাবে বলে জানায়। এরপর তারা ওই ছাত্রীকে কৌশলে নির্জন স্থানে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করে রাস্তায় ফেলে যায়। পরে ওই ছাত্রী বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি তার মাকে জানায়। সোমবার সকালে তার মা বাদী হয়ে দু’জনকে আসামি করে ঘাটাইল থানায় মামলা দায়ের করেন। ওই মাদ্রাসাছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতারেল তত্ত্বাবধায়ক ডা. নারায়ন চন্দ্র সাহা বলেন, সোমবার বিকেলে তিন সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ড ওই ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করেছে।