বান্ধবীর ভাড়া বাসায় বেড়াতে এসেছিল ষোল বছরের এক কিশোরী। বান্ধবীর সঙ্গে একই বিছানায় রাতে ঘুমিয়ে পড়ে ওই কিশোরী। কিন্তু সন্ধ্যার পর থেকেই ওই রুমের প্রতি নজর রাখেন বাড়ির কেয়ারটেকার বাবুল ও দুদু মিয়া। পরে তাদের সহায়তায় মধ্যরাতের পর বেড়াতে আসা কিশোরীকে ঘরে আটকে সুজন ও মুন্না নামে ২ যুবক ধর্ষণ করেন।

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার এমসি বাজার এলাকায় বৃহস্পতিবার রাতে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শুক্রবার থানায় একটি মামলা হয়েছে। ইতোমধ্যে অভিযুক্ত সুজন ও সহযোগী বাবুলকে গ্রেপ্তার করেছে শ্রীপুর থানা পুলিশ। 

শ্রীপুর থানার ওসি (অপারেশন) গোলাম সারোয়ার জানান, সুজন উপজেলার ধামলই গ্রামের মজনু মিয়ার ছেলে ও পাশের মুলাইদ উত্তর গ্রামের মো. মুন্না। 

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওই কিশোরী বান্ধবীর ভাড়া বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিল। তা টের পায় বাড়ির তত্ত্বাবধায়ক বাবুল ও দুদু। রাত প্রায় আড়াইটার দিকে দুদু, সুজন, মুন্না ও বাবুল সেখানে হানা দেয়। মেয়েটির বান্ধবীকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে তারা। পরে তার বান্ধবীকে বাইরে নিয়ে আটকে রাখে। এরপর সুজন ও মুন্না কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। 

থানার ওসি খোন্দকার ইমাম হোসেন বলেন, ‘অভিযুক্ত আরেক ধর্ষকসহ দুইজনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’

মন্তব্য করুন