২০ বছর ধরে যুক্তরাজ্যে বসবাস করছেন সেলিম উদ্দিন। সম্প্রতি তিনি সেখানে স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি পেয়েছেন। অনুমতি পাওয়ার পর দেশে আসার কথা ছিল তার। কিন্তু সহকর্মীর হাতে খুন হওয়ায় ফেরা হলো না তার।

কথা কাটাকাটির জের ধরে সহকর্মীর ছুরিকাঘাতে শুক্রবার স্কটল্যান্ডের বাংলাদেশি মালিকানাধীন এক রেস্টুরেন্টে নিহত হয়েছেন শেফ সেলিম উদ্দিন। তিনি সিলেটের বিয়ানীবাজার পৌরসভার ফতেহপুর গ্রামের মরহুম সাদই মিয়া ছেলে।

সেলিম স্কটল্যান্ডের ইনভারকেটিং হাই স্ট্রিটের বাংলাদেশি মালিকানাধীন গুলশান তান্দুরি রেস্টুরেন্টে শেফের কাজ করতেন। ওই রেস্টুরেন্টের মালিকও তার নিজ এলাকার। রেস্টুরেন্টে স্টাফ সংকট হলে সেলিম প্রায়ই বাঙালি কমিউনিটি থেকে স্টাফ সংগ্রহ করতেন। যার ছুরিকাঘাতে প্রাণ হারালেন, তাকেও কিছুদিন আগে কাজে এনেছিলেন সেলিম। ঘাতকের নাম ও পরিচয় প্রকাশ করেনি পুলিশ। ওই সহকর্মীর সঙ্গে আফগান পরিস্থিতি ও তালেবান ইস্যুতে তর্ক বাঁধে সেলিমের। বাগ্‌বিতণ্ডার একপর্যায়ে ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে।

স্কটল্যান্ডের পুলিশ জানায়, শুক্রবার বিকেলে গুরুতর জখম অবস্থায় সেলিমকে পুলিশ এডিনবরার রয়েল ইনফারমারিতে নিয়ে যায়। সেখানেই তার মৃত্যু হয়। পুলিশ ঘাতককে ছুরিসহ রক্তাক্ত অবস্থায় ইনভারকেটিং স্টেশন থেকে আটক করে।